অবশেষে ক্ষমা চাইলেন সেই বিচারক

উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ থাকার পরেও ধ’র্ষ’ণ মামলায় এক আসামিকে জামিন দেওয়ায় ক্ষমা চেয়েছেন প্রত্যাহার হওয়া বিচারক মোছা. কামরুন্নাহার।সোমবার (২২ নভেম্বর) সকালে আপিল বিভাগে ক্ষমা চান তিনি।

এর আগে এই মামলার আসামিকে জামিন দেয়ার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে আপিল বিভাগে হাজির হয়েছিলেন তিনি।রেইনট্রি হোটেলে ধ’র্ষ’ণের মামলায় রায়ের পর বিচারিক ক্ষমতা হারান কামরুন্নাহার।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১২ মার্চ একটি মামলার ব্যাখ্যা দিতে কামরুন্নাহারকে আদালতে তলব করা হয়। সে সময় তাকে ২ এপ্রিল আপিল বিভাগে হাজির হয়ে আসামিকে জামিন দেওয়ার কারণ ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় এক নারীকে ধ’র্ষ’ণের অভিযোগে বেসরকারি টেলিভিশন এটিএন বাংলার সাবেক প্রোগ্রাম প্রডিউসার আসলাম শিকদারের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর মামলা করা হয়। ওইদিনই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পরদিন তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। ২০১৯ সালের ১৮ জুন হাইকোর্ট তাকে জামিন দেন। পরে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২৫ জুন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত আসলামের জামিন স্থগিত করেন।

চেম্বার আদালতে জামিন স্থগিত থাকার পরও গত বছরের ২ মার্চ আসামি আসলামকে জামিন দেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক কামরুন্নাহার। এরপর ১২ মার্চ কামরুন্নাহারকে তলব করেন আপিল বিভাগ।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.