অবশেষে বাবার কাছে পৌঁছাল কাঁটাতার পেরোনো সেই নবজাতক (ভিডিও)

কাবুল বিমানবন্দরে কাঁটাতারের ওপর দিয়ে আমেরিকান সেনার হাতে তুলে দেওয়া একটি দুধের শিশুর ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয় বিশ্বগণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। মুহূর্তে সেই শিশুটির জন্য কেঁদে উঠে হাজারো মানুষের মন। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মানুষ ভিডিওর সেই শিশুটি তার মা বাবার কাছে পৌঁছেছে কিনা জানতে চান।

তবে আশার কথা হলো, হাসপাতালে চিকিৎসার পর শিশুটিকে তার বাবার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে শুক্রবার এ কথা জানিয়েছেন আমেরিকার প্রতিরক্ষা দপ্তরের মুখপাত্র জন কিরবি। এদিকে কিরবি বলেছেন, ‘সেনার হাতে তুলে দেওয়ার সময় শিশুটির বাবা-মা বলেছিল, সে খুব অসুস্থ। তার যেন দেখাশোনা করা হয়।

এর পরেই বিমানবন্দরের মধ্যে থাকা হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়েছে শিশুটির। চিকিৎসার পর সুস্থ হতেই বাচ্চাটিকে তার বাবার কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।’ এই ঘটনায় সেনা জওয়ানদের সহানুভূতি এবং মানবিকতার প্রশংসা করেছেন তিনি। তবে শিশুটি এখন কোথায় রয়েছে তা অবশ্য তিনি জানেন না বলে দাবি করেছেন।

কাবুলের এই পরিস্থিতিতে হৃদয়বিদারক এ দৃশ্য কাবুল বিমানবন্দরের। প্রাণের সন্তানকে তুলে দিচ্ছেন মার্কিন সেনাদের হাতে। প্রিয় সন্তানের জীবন বাঁচাতে মায়ের এই চেষ্টা নাড়িয়ে দিয়েছে পুরো বিশ্বকে। ১২ থেকে ১৫ ফুট উচ্চতার কাঁটাতারের বেড়াজালও বাধা মনে হয়নি।

তালেবান আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণের পর থেকেই উঁচু দেয়াল, কাঁ’টাতা’রের বেড়া, তালেবানের বাধা কিংবা উড়ন্ত বিমানের চাকা কোনো কিছুই তোয়াক্কা না করে দেশত্যাগে হু’মড়ি খেয়ে পড়েন সাধারণরা। এ অবস্থার মধ্যেই আফগানদের দেশত্যাগে বাধা দিচ্ছে তালেবান।

শুক্রবার রয়টার্স প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, কাবুল বিমানবন্দর এলাকায় হাতবো’মা ছু’ড়ে সাধারণ মানুষের গতিরোধ করার চেষ্টা করে তালেবান সদস্যরা। সাধারণ আফগানদের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের সেনা ও কূটনীতিকদেরও কাবুল ছেড়ে যাওয়া অব্যাহত আছে।

বিদেশি বাহিনীগুলোকে সহায়তাকারী আফগানদের ক্ষমা করে দেয়ার ঘোষণা দিলেও, এখন তালিকা করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশি করায়, পরিস্থিতি নতুন মোড় নিতে শুরু করেছে। আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলে সাংবাদিকদের খোঁজে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশি চালিয়েছেন তালেবান সদস্যরা।

এর মধ্যে জার্মান সম্প্রচারমাধ্যম ডয়চে ভেলের একজন সাংবাদিকের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে তাকে না পেয়ে তার এক আত্মীয়কে তালেবান সদস্যরা গু’লি করে হ’ত্যা করেছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি। ওই সাংবাদিক এরই মধ্যে জার্মানিতে চলে গেছেন। আতঙ্কে পরিবারের বাকিরা পালিয়ে অন্যত্র চলে গেছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে এক ব্রিটিশ অফিসার ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এখনও প্রায় ১০ হাজার মানুষ কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে ভিড় করেছেন। ভিতরে ঢুকতে না পেরে কেউ কেউ তাদের বাচ্চাদের ছুড়ে দিয়েছেন কাঁটাতারের ওপর দিয়ে। ওই ব্রিটিশ অফিসার বলেছেন, ‘ভয়ংকর অবস্থা।

মহিলারা তাদের বাচ্চাদের কাঁটাতারে ওপর দিয়ে ছুড়ে দিচ্ছেন। সেনাদের বলছেন তাদের বাচ্চাদের ধরতে। এ ভাবে ছু’ড়তে গিয়ে কেউ কেউ আটকে যাচ্ছে কাঁ’টাতা’রে। এ সব দেখে আমাদের সেনাদের অনেকে কেঁদে ফেলেছেন। অনেকের কাউন্সেলিংও করানো হয়েছে।’

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.