অবসরে গেলেন বোমা শনাক্তকারী ইঁদুর

অবসরে গেলেন ল্যান্ডমাইন শনাক্তকারী স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত মাগাওয়া নামক ইঁদুর। পাঁচ বছরের ক্যারিয়ারে ইঁদুরটি কম্বোডিয়ায় ৭১টি ল্যান্ডমাইন এবং আরও কয়েক ডজন অবিস্ফোরিত ল্যান্ডমাইন শনাক্ত করেছে।ইঁদুরটি পরিচালনাকারী মেলেন বলেন, সাত বছর বয়সী আফ্রিকান দৈত্য আকৃতির ইঁদুরটি বার্ধক্যে পৌঁছেছে।

এখন সে ধীরে ধীরে চলছে। এই জন্য তিনি তার এই প্রয়োজনকে সম্মান করতে চান।মাগাওয়া বেলজিয়ামের নিবন্ধিত দাতব্য ‘অ্যাপোপো’ দ্বারা প্রশিক্ষণ নিয়েছিল, যা তানজানিয়ায় অবস্থিত। ১৯৯০ এর দশক থেকে ল্যান্ডমাইন শনাক্ত করতে পশুদের ‘HeroRATs’ নামে পরিচিত হয়ে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। এখান থেকে এক বছর প্রশিক্ষণের পর প্রাণীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

আরও পড়ুন:>নরসিংদীতে মন্দিরে চুরির ঘটনায় গ্রেফতার ৩! নরসিংদী শহরের পাতিলবাড়ি রোডের ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী গৌর বিষ্ণুপ্রিয়া আশ্রমের বিগ্রহ মন্দিরে চুরির ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- নরসিংদী শহরের বানিয়াছল মহল্লার ভাড়াটিয়া সোলেমান মিয়ার ছেলে আল আমিন (২১), একই মহল্লার মজিবর রহমানের ছেলে রতন মিয়া (২১) ও পলাশ উপজেলার গজারিয়া এলাকার জামাল উদ্দিনের ছেলে আব্দুল্লাহ (২১)। এ সময় তাদের দখল থেকে চুরি হওয়া ১১ ভরি রূপার দুটি বাঁশি ও ১টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

নরসিংদী সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউর রহমান জানান, শ্রী শ্রী গৌর বিষ্ণুপ্রিয়া আশ্রমের বিগ্রহ মন্দিরে চুরির ঘটনায় বৃহস্পতিবার ওই মন্দির কমিটির সভাপতি অহিভূষণ চক্রবর্তী বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মামলা করেন। মামলা করার পর মন্দিরের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আব্দুল্লাহকে শনাক্ত করা হয়।

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সদর থানার বাদুয়ারচর পশ্চিম পাড়া নদীর পাড় এলাকার একটি বাড়ি থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করে। এ সময় তাদের দখল থেকে চুরি হওয়া ১১ ভরি রূপার দুটি বাঁশি ও ১টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

তাদের বিরুদ্ধে এর আগেও নরসিংদীসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক চুরির মামলা রয়েছে।এর আগে বুধবার (২ জুন) দিবাগত রাত ২টার দিকে আশ্রমটিতে গ্রিল ভেঙে চুরির ঘটনা ঘটে। এ সময় বিগ্রহ মন্দিরের গ্রিল ভেঙে ৩ ভরি স্বর্ণের অলংকার, ২০ ভরি ওজনের দুইটি রূপার বাঁশি, ১৪টি ধুতি, ১৩টি শাড়ি ও ভক্তদের প্রণামী হিসেবে দেওয়া নগদ টাকা চুরি হয়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.