আগুন লেগে ডুবে গেছে ইরানি সবচেয়ে বড় জাহাজ!

গালফ অব ওমানে ইরানি নৌবাহিনীর সবচেয়ে বড় জাহাজ আগুন লাগার পর ডুবে গেছে। খার্গ নামের জাহাজটিতে ইরানের জাস্ক বন্দরের কাছেই আগুন লাগে। আগুন নেভাতে ২০ ঘণ্টারও বেশি সময় চেষ্টা করা হয়। তবে শেষ পর্যন্ত বাঁচানো যায়নি খার্গকে, বলে জানিয়েছে দেশটির নৌবাহিনী। আজ বুধবার এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, জাহাজটি একটি প্রশিক্ষণ মিশন পরিচালনা করছিল। আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। খার্গের নাবিকরা নিরাপদেই বের হতে পেরেছেন। এখনো পর্যন্ত জাহাজে আগুন লাগার কারণ নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। এছাড়া জাহাজটি কী কারণে ডুবেছে তা-ও জানা যায়নি।

ইরানি সেনাবাহিনী জানিয়েছে, ২০ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে আগুন নেভানোর চেষ্টা করা হয়। একটি ছবিতে দেখা যায়, লাইফ জ্যাকেট পরে জাহাজের ক্রুরা ছোটাছুটি করছে। জাহাজটিতে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। আরেক ছবিতে দেখা যায়, সেখানে আকাশে কালো ধোঁয়া উড়ছে এবং তখনও আগুন জ্বলছে।

ইরানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, এই জাহাজ ‘প্রশিক্ষণ জাহাজ’ হিসেবেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে। আগুন লাগার সময় জাহাজটি ৪০০ ক্রু ছিল বলেও জানিয়েছে তারা। তবে তাদের সবাইকে নিরাপদেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় একজন সেনা কর্মকর্তা আধাসরকারি বার্তা সংস্থা তাসনিমকে জানিয়েছে, ২০ জন সামান্য আহত হয়েছে।

জানা গেছে, টনের দিক থেকে ইরানিয়ান নৌবাহিনীর সবচেয়ে বড় জাহাজ খার্গ। যুক্তরাজ্যে তৈরির পর ১৯৭৭ সালে জাহাজটি পানিতে নামে। খার্গ যেখানে ডুবেছে তার কাছেই হরমুজ প্রণালী যা বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শিপিং লেন। এটি ইরান ও পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে ক্রমবর্ধমান বৈরিতার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে। সূত্র : বিবিসি, আলজাজিরা

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.