আজীবন নিষিদ্ধ হতে পারেন স্যামুয়েলস

মারলন স্যামুয়েলসের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ গঠন করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা, আইসিসি। সংস্থাটির দুর্নীতি আইন অনুযায়ী, টি-টেন লিগে ২.৪.২, ২.৪.৩, ২.৪.৬ এবং ২.৪.৭ এই চার ধারা লঙ্ঘনের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক এই ক্রিকেটার।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের নতুন সংযোজন টি-টেন লিগে কর্ণাটক টাস্কার্সের হয়ে খেলেছেন স্যামুয়েলস। দলটির হয়ে খেলার সময় জুয়াড়িদের কাছে থেকে উপহার সামগ্রী এবং টাকা নিয়েছিলেন এই ক্রিকেটার- আইসিসির কাছে এমন অভিযোগ দায়ের করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড, ইসিবি।

টি-টেন লিগে খেলার সময় আইসিসির আচরণবিধির ২.৪.৩ অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন অনুযায়ী, স্যামুয়েলস জুয়াড়িদের কাছে থেকে ৭৫০ মার্কিন ডলার কিংবা তার চেয়ে বেশি অর্থ নিয়েছেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগের বিপরীতে নিজের বক্তব্য উপস্থাপন করার জন্য দুই সপ্তাহ সময় পাবেন স্যামুয়েলস।

ইসিবির অভিযোগের পর স্যামুয়েলসের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে আইসিসি। তদন্ত শুরু হওয়ার পর আরও একটি অভিযোগ এসে পড়ে তার ঘাড়ে। তদন্তকারী কর্মকর্তাদের সহায়তা না করে উল্টো বাধা দিয়েছেন তিনি। অভিযোগ প্রমাণ হলে সব ধরনের ক্রিকেটীয় কার্যকলাপ থেকে আজীবন নিষিদ্ধ হতে পারেন সাবেক এই অলরাউন্ডার।

২০০০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গণে পথচলা শুরু হয় স্যামুয়েলসের। দেশকে ২০১২ ও ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতাতে রাখেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। ৭১ টেস্ট, ২০৭ ওয়ানডে এবং ৬৭ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের প্রতিনিধিত্ব করেছেন সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.