আটকে গেলো আর্জেন্টিনা, জয় পেল ব্রাজিল

এবারের আন্তর্জাতিক বিরতির একেবারে শুরুর ম্যাচেই হোঁচট খেলো আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের লাতিন অঞ্চলের খেলায় প্যারাগুয়ের সাথে গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছেড়েছে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। প্রতিপক্ষের মাঠে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোরে শুরু হওয়া ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়। কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এই নিয়ে চতুর্থ ম্যাচে পয়েন্ট হারাল আর্জেন্টিনা।

আক্রমণাত্মক শুরু করা আর্জেন্টিনা ম্যাচের প্রথম তিন মিনিটেই দুটি সুযোগ তৈরি করে, তবে ফিনিশিং ব্যর্থতায় সাফল্য মেলেনি। চতুর্থ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে অনেক দূর থেকে সান্তিয়াগো আর্সামেন্দিয়ার শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। ক্রমেই চাপ আরও বাড়ানো আর্জেন্টিনা দুই মিনিটের ব্যবধানে দুটি নিশ্চিত সুযোগ পায়।

দশম মিনিটে মেসির রক্ষণচেরা পাস ডি-বক্সে পেয়ে হোয়াকিন কোরেয়ার কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ফেরান প্যারাগুয়ে গোলরক্ষক আন্তোনি সিলভা। পরেরবারও মেসি ডি-বক্সে খুঁজে নেন কোরেয়াকে। এবার ইন্টার মিলানের এই মিডফিল্ডারের শট গোলরক্ষক ঠিকমতো ফেরাতে না পারলে গোলমুখে পেয়ে যান ডি মারিয়া।

তার টোকায় বল ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বাইরে যায়। ২৬তম মেসির ফ্রি-কিক অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। দ্বিতীয়ার্ধেও একইরকম আক্রমণাত্মক শুরু করে আর্জেন্টিনা। তবে বারবার শেষে গিয়ে খেই হারাচ্ছিল তারা। পাল্টা-আক্রমণে ৫৪তম মিনিটে ম্যাচে দ্বিতীয়বার লক্ষ্যে শট নেয় স্বাগতিকরা। মিগেল আলমিরোনের দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন মার্টিনেজ।

চার মিনিট পর বাঁ থেকে ডি মারিয়ার ক্রসে মেসির শট ক্রসবার ঘেঁষে ভিতরে ঢুকতে যাচ্ছিল। শেষ মুহূর্তে কর্নারের বিনিময়ে রুখে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক। ৬৪তম মিনিটে বেঁচে যায় আর্জেন্টিনা; আন্তোনিও সানাব্রিয়ার কাছ থেকে নেওয়া শট দারুণ রিফ্লেক্সে রুখে দেন এমি মার্টিনেজ।

সাত মিনিট পর তোরিনোর এই ফরোয়ার্ডের কোনাকুনি শটে বল পোস্টের পাশ দিয়ে বেরিয়ে যায়। বাকি সময়ে আর কোন গোল না হলে এই ম্যাচে পাওয়া এক পয়েন্টের কল্যানে ৯ ম্যাচ শেষে আর্জেন্টিনার পয়েন্ট দাড়াল ১৯। অন্যদিকে ১০ ম্যাচে প্যারাগুয়ের পয়েন্ট দাড়াল ১২।

অন্যদিকে, ভেনিজুয়েলার মাঠে শুরুতেই পিছিয়ে পড়ার পর কোনভাবেই যেন গোলের পথ পাচ্ছিল না ব্রাজিল। তবে শেষ দিকে ঠিকই ঘুরে দাঁড়ায় তিতের দল। ভেনেজুয়েলাকে হারিয়ে ধরে রাখে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের অপ্রতিরোধ্য যাত্রা। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে ব্রাজিল। চলতি আসরে ৯ ম্যাচে এটি তাদের নবম জয়।

একাদশ মিনিটে নিজেদের প্রথম ভালো সুযোগেই এগিয়ে যায় ভেনেজুয়েলা। ডান দিক থেক সোতেলদোর চমৎকার ক্রস পেনাল্টি স্পটের কাছে ঠেকানোর চেষ্টায় ভারসাম্য হারিয়ে পড়ে যান মার্কুইনহেস ও ফাবিনহো। অরক্ষিত হয়ে পড়া এরিক রামিরেস বাকিটা সারেন অনায়াসে। তেমন কিছুই করার ছিল না গোলরক্ষক আলিসনের।

২৩তম মিনিটে লুকাস পাকেইতার ডিফেন্স চেরা পাসে ডি-বক্সে বল পেয়ে যান এভেরতন রিবেইরো। তার শটে নাউয়েল ফেরারেসির পা ছুঁয়ে ক্রসবারে লেগে ফিরলে বেঁচে যায় ভেনেজুয়েলা। ফিরতি বলে সুযোগ কাজে লাগানোর মতো তৎপরতা দেখাতে পারেননি বারবোসা।

প্রথমার্ধে ৬৬ শতাংশ সময় বল দখলে রাখা ব্রাজিলের চার শটের একটিও ছিল না লক্ষ্যে। ভেনেজুয়েলার সমান শটের তিনটি ছিল লক্ষ্যে। ৫০তম মিনিটে ডি-বক্সের কাছেই প্রতিপক্ষের একজনকে পাস দিয়ে বিপদ ডেকে এনে আনেন আলিসন। লিভারপুল গোলরক্ষকের ভাগ্য ভালো সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি ভেনেজুয়েলা।

ম্যাচের ৭১তম মিনিটে সমতা আনেন মার্কুইনহেস। রাফিনিয়ার কর্নারে সবার উপর লাফিয়ে জোরালো হেড করেন তিনি। কাছেই ছিলেন গোলরক্ষক, কিন্তু বলের জালে যাওয়া ঠেকাতে পারেননি তিনি। লক্ষ্যে এটাই ছিল ব্রাজিলের প্রথম শট। ৮৫তম মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্রাজিলকে এগিয়ে নেন বারবোসা।

তাকেই অস্কার গনসালেস ফাউল করায় পেনাল্টি পেয়েছিল সফরকারীরা। ছয় মিনিট যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে ব্রাজিলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন এন্থনি। রাফিনিয়ার কাটব্যাকে গোলমুখে বল পেয়ে যান তিনি। গোলরক্ষক শট কোনোমতে ফিরিয়ে দিলেও ফিরতি বলে ঠিকানা খুঁজে নেন কিছুক্ষণ আগে মাঠে আসা এই ফরোয়ার্ড।

৯ ম্যাচে টানা ৯ জয়ে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও শক্তিশালী করেছে ব্রাজিল। সেই সাথে সবার আগে কাতার বিশ্বকাপ নিশ্চিত করার আরও কাছে পৌঁছে গেছে তিতের দল। দিনের অন্য ম্যাচে অংসখ্য সুযোগ হারিয়ে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে আর্জেন্টিনা। ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রয়েছে দলটি। ১০ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে ভেনেজুয়েলা।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.