আবারও নির্বাচনের ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’

চতুর্থ ধাপে ইউপি নির্বাচনে অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল রবিবার। নির্বাচনের ব্যালটে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা ও সিল রয়েছে। এমন তিনিটি ব্যালট পেপার নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার নরোত্তমপুর ও সুন্দলপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পাওয়া গেছে। চেয়ারম্যান প্রার্থীদের তিন ব্যালট পেপারে মধ্যে একটি সিল মার আর বাকি দুইটিতে হাতে লেখা।

রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেলে ভোট গণনার সময় এসব ব্যালেট গুলো পাওয়া যায়। পরে মুহুর্তের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছীব গুলো ভাইরাল হয়। জানা গেছে, তিনটি ব্যালটের দুটিই পাওয়া গেছে নরোত্তমপুর ইউনিয়নে। এরমধ্যে একটিতে কবিরহাট উপজেলা ছাত্রদলের পক্ষে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ সিল, আরেকটিতে হাতে লেখা।

অন্যদিকে, সুন্দলপুরে পাওয়া ব্যালটে হাতেই লেখা ছিল। কবিরহাট উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এমন ব্যালট পাওয়া গেলে তা বাতিল বলে গণ্য করা হয়। এ ব্যালটগুলোও বাতিল করা হয়েছে।’জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমান বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সারা দেশে দলীয় নেতাকর্মীরা আন্দোলন করছেন।

তাই আবেগে কোনও নেতা বা কর্মী এ কাজ করেছে বলে প্রতীয়মান হয়। এর আগেও এই ধরনের লেখা সংবলিত ব্যালট পেপার পাওয়া গেছে।’ এর আগে, তৃতীয় ধাপে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একটি ব্যালট পেপারে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখা সিল পাওয়া গেছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.