আরও অনেক মুসলিম ক্রিকেটার পাবে ইংল্যান্ডঃ মঈন

২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালের ঘটনা। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিতে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা নিজেদের করে নিয়েছে ইংল্যান্ড। শিরোপা হাতে পাওয়ার পর শ্যাম্পেন নিয়ে উদযাপনের মাতেন ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা। তখন দেখা যায় পুরো দল থেকে আলাদা হয়ে খানিক দূরে সরে দাঁড়িয়েছেন ইংল্যান্ডের দুই মুসলিম ক্রিকেটার মঈন আলি ও আদিল রশিদ।

মূলত ধর্মীয় বিশ্বাসের কারণেই সতীর্থদের সঙ্গে মদ ছিটানো উল্লাসে যোগ দেননি মঈন-আদিল। পুরো ক্যারিয়ারজুড়েই এমন ধর্মীয় বিশ্বাস রেখে খেলেছেন মঈন। প্রায় সাত বছর ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট খেলার পর আজ (সোমবার) সাদা পোশাকের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী এ অলরাউন্ডার।

বিদায়বেলায় তিনি আশা প্রকাশ করেছেন ইংল্যান্ড দলে আরও বেশি বেশি মুসলিম ক্রিকেটার দেখার। তিনি আশাবাদী, তার দেখাদেখি আরও অনেক মুসলিম ধর্মালম্বীই এগিয়ে আসবেন ক্রিকেটে। অবসর নেয়ার পর বিদায়ী বার্তায় মঈন বলেছেন, ‘সবসময়ই অনুপ্রেরণার জন্য কাউকে প্রয়োজন হয়।

অথবা এমন কারো প্রয়োজন হয়, যাকে দেখে আপনি ভাবতে পারেন যে, সে পারলে আমিও পারবো। আমি আশা করছি, এখন অনেক মানুষই এমনটা ভাবছে।’ দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক হাশিম আমলাকে নিজের অনুপ্রেরণা হিসেবে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমি জানি সে ইংল্যান্ডের নয়, তবু হাশিম আমলার মতো একজন…

তাকে যখন প্রথম দেখলাম, আমি ভেবেছি সে যদি পারে তাহলে আমিও পারবো। এই ছোট বারুদটা প্রয়োজন হয়।’ মঈন আরও বলেন, ‘৮-১০ বছর পর যদি দেখি কেউ বলছে, মঈনের জন্য আমার কাজটা সহজ হয়েছে, তাহলে আমার অবশ্যই ভালো লাগবে। আমার আগেও অনেকে ছিলো যারা আমার পথ সহজ করেছে। তাই আমিও অন্য কারো জন্য দ্বার উন্মোচনের আশা রাখি।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.