‘আ’লীগকে জেতাতে প্রয়োজনে একে-৪৭ ব্যবহার হবে’ (ভিডিওসহ)

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে জেতানোর জন্য প্রয়োজনে একে-৪৭ ব্যবহার করা হবে বলে হু’মকি দিয়েছেন কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন। একটি হ’ত্যা মা’মলার আসামি এই নেতা বর্তমানে জামিনে আছেন।

শুক্রবার (৫ নভেম্বর) বিকালে উপজেলার হুমাইপুর ইউনিয়নের টান গোসাইপুর গ্রামে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম ধনু মিয়ার এক নির্বাচনী জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। এর আগেরদিন রাতে ইউনিয়নের চৈতনপুর ও নামা গোসাইপুরে নৌকার প্রতীক পুড়িয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। এর প্রতিবাদেই জনসভার আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় মানুষজন ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীরা জানান, প্রকাশ্য জনসভায় মাইকে বক্তব্য দিতে গিয়ে ওই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী ছাড়া অন্য কোনো চেয়ারম্যানের ভোট হবে না। নৌকা মার্কার ভোট হবে ওপেন টেবিলে। অন্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দেব। ওইদিন আমরা শুধু আমাদের হুমাইপুরের জনগণের শক্তি নিয়ে আসব না।

তিনি আরও বলেন, আমরা শুধু একে-৪৭ নয়, প্রয়োজনে যা যা দরকার তা নিয়ে আমাদের প্রার্থীকে পাশ করাতে আসব। প্রশাসন আমাদের, পুলিশ আমাদের, সরকার আমাদের। আর কিছু বলার দরকার আছে? এদিকে এমন হু’মকিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে। আশঙ্কা করা হচ্ছে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া নিয়ে।

হুমাইপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মো. আরিফুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম ধনু মিয়া, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন, বাজিতপুর পৌর আওয়ামী লীগ নেতা শওকত আকবর, সাবেক চেয়ারম্যান শফিউল হক, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নাজমুল হোসাইন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

১১ নভেম্বর বাজিতপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তিনটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। সূত্র: বার্তা বাজার

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.