ইউরোপে বসেই নৌকা বাগিয়ে নিলেন শাহ আলম

শরীয়তপুর জেলার সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন শাহ আলম মুন্সি। তিনি বর্তমানে ইউরোপের দেশ ইতালিতে বসবাস করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।পাশাপাশি তিনি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলেও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অভিযোগ রয়েছে। এতে করে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ গোলাম মোস্তফা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২০১৭ সালের শেষের দিকে শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের হবিপুর গ্রামের মৃ’ত দলিল উদ্দিন মুন্সির ছেলে শাহ আলম মুন্সি ইউরোপের দেশ ইতালি চলে যান।

আসন্ন ২০২১ সালের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার জন্য মাহমুদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান ঢালী, সুমন ঢালী, হারুন খালাসী, মামুন খান, শাহীন তালুকদার, জালাল চৌকদারসহ ৯ জন মনোনয়ন বোর্ডের কাছে সশরীরে উপস্থিত হয়ে আবেদন করেন।

কিন্তু ইতালি প্রবাসী শাহ আলম মুন্সি গত ৪ বছর ধরে স্থায়ীভাবে ইতালিতে বসবাস করলেও রহস্যজনক কারণে নৌকার মনোনয়ন পেয়ে যান।গোলাম মোস্তফা আরও জানান , শাহ আলম মুন্সি ইতালি প্রবাসে থাকলেও তার স্বাক্ষর জাল করে এবং সশরীরে মনোনয়ন বোর্ডে উপস্থিত না হয়ে ও নৌকার মাঝি বনে যান। এ নিয়ে খোদ আওয়ামী লীগের মধ্যে চরম ক্ষো’ভ সৃষ্টি হয়েছে।

মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগের মাহমুদপুর ইউনিয়নের সভাপতি লিয়াকত হোসেন হান্নান তালুকদার বলেন, শাহ আলম মুন্সি একজন বিএনপির সমর্থক ষ’ড়য’ন্ত্র করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হক শাহ আলম মুন্সিকে মনোনয়ন দেন। গতবারও আওয়ামী লীগের লোকজনকে না দিয়ে তাকে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ায় তিনি বিপুল ভোটে পরাজিত হন।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মামুন খান বলেন, শাহ আলম মুন্সি একজন বিএনপির লোক। কীভাবে তিনি ইতালি বসে মনোনয়ন পান আমরা জানি না। তার স্বাক্ষর কে করলো তাও আমরা জানি না। এর তী’ব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন অপু বলেন, এই মনোনয়নের ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।

বিষয়টি সাবেক এমপি বিএম মোজাম্মেল হক বলতে পারবেন। শাহ আলম মুন্সি কোন দল করেন তাও আমি জানি না। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শরীয়তপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হককে একাধিকবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.