ইসরাইল নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান জানালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

শুরু থেকেই ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের পক্ষে শক্ত ব্যবস্থান বাংলাদেশের। অনেক মুসলিম দেশের মতো বাংলাদেশও ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেনি। অতীতের টানাপোড়েন ভুলে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথে হাঁটছে আরব উপসাগরীয় অঞ্চলের বেশ কিছু দেশ।

এ নিয়ে ইহুদি রাষ্ট্রটির সঙ্গে এরই মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। ইসরায়েলের সঙ্গে আরব দেশগুলোর সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়টি কীভাবে দেখছে বাংলাদেশ? বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, দ্বিরাষ্ট্রিক সমাধানে বিশ্বাসী বাংলাদেশ। আর এটিই মধ্যপ্রাচ্যসহ গোটা বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার উপায় বলে বাংলাদেশ বিশ্বাস করে বলে জানান তিনি।

তুরস্ক সফরের সময় দেশটির সরকারি সংবাদমাধ্যম আনাদুলো এজেন্সিকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা চাই, ফিলিস্তিনের জনগণ তাদের ভূমির অধিকার ফিরে পাক। আমরা দ্বি-রাষ্ট্রিক সমাধানে বিশ্বাসী। ইসরায়েল রাষ্ট্রের পাশাপাশি জেরুজালেমকে রাজধানী করে অবশ্যই ফিলিস্তিন রাষ্ট্র হতে হবে। আর এটাই আমাদের মূল ও নীতিগত অবস্থান।

তিনি বলেন, সম্প্রতি যা ঘটছে- তাতে রাজনীতিতে অনেক পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে, বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্যে। আশা করি, এসব কিছু দুটি রাষ্ট্র গঠনের পথ সুগম করবে। তারা যদি দুটি রাষ্ট্র গঠনের মাধ্যমে সমাধান করতে পারে, তাহলে সেটা ভালো হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা বিষয়টা পর্যবেক্ষণ করছি। তবে আমাদের উদ্দেশ্য হবে দুটি রাষ্ট্র গঠনের মাধ্যমে সমাধান। সুরক্ষা, নিরাপত্তা ও শান্তিসহ টেকসই দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান। আমাদের বিশ্বাস, দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান ছাড়া মধ্যপ্রাচ্য ও বিশ্বে টেকসই শান্তি প্রতিষ্ঠা হতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *