উত্তেজনার মধ্যেই বৈঠক ভারত-চীনের

প্যাংগংয়ের দক্ষিণপ্রান্তকে কেন্দ্র করে বর্তমানে ভারত-চীন দ্বন্দ্ব চরমে। সীমান্তের বারুদের গন্ধ পৌঁছে গেছে মস্কোয়। মস্কোতে সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও) এর পার্শ্ববৈঠকে দু’দফায় মুখোমুখি হয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই।

বৃহস্পতিবার মধ্যাহ্নভোজনে ত্রিপাক্ষিক স্তরে আলোচনায় বসেন ভারত, চীন এবং রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আর সন্ধ্যায় শুধু ভারত এবং চীন। গভীর রাত পর্যন্ত চলে সীমান্তে শান্তি এবং সুস্থিতি ফিরিয়ে আনার জন্য আলোচনা।

তবে বৈঠক শেষে দুই দেশের তরফেই আনুষ্ঠানিক ভাবে এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। যদিও ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, জয়শঙ্কর-ওয়াং বৈঠকে আলোচনার মূল বিষয় ছিল লাদাখ। লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা কমানো এবং প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সেনা সরানোর বিষয়েই আলোচনা হয়েছে। লাদাখ সংঘ’র্ষ শুরুর পরে এই প্রথম মুখোমুখি সাক্ষাৎ জয়শঙ্কর এবং ওয়াং-এর।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের খবর, বৈঠকে জয়শঙ্কর তার গভীর উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন ওয়াং-কে। সীমান্তে এই সংঘা’তের সঙ্গে যে ভারত এবং চীনের সামগ্রিক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক সংযুক্ত হয়ে গিয়েছে, সেই বার্তাও দিয়েছেন তিনি। সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে হলে সীমান্ত থেকে সেনা সরাতে হবে চীনকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *