একাদশে জায়গা না পেয়ে যা বললেন তাইজুল

অস্ট্রেলিয়ার পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলছে বাংলাদেশ। কিউইদের বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ জিতে আজকের ম্যাচকে সিরিজ নির্ধারণীতে পরিণত করেছে মাহমুদউল্লাহ বাহিনী।এদিকে ঘোষণা না এলেও আজকের ম্যাচেও অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ- এমন আভাসই পাওয়া গেছে।

উইনিং কম্বিনেশনে কোনো পরিবর্তন আনতে রাজি নয় টিম ম্যানেজমেন্ট। অর্থাৎ তৃতীয় ম্যাচেও সাইডবেঞ্চে বসে খেলা দেখতে হতে পারে সৌম্য, তাইজুল ও শরিফুল ইসলামকে। বিশেষ করে একাদশে সুযোগ পাওয়া তাইজুলের জন্য খুবই ক্ষীণ। কারণ মিরপুরের মন্থর উইকেটে দাপট দেখাচ্ছেন দুই বাঁহাতি স্পিনার সাকিব আল হাসান ও নাসুম আহমেদ।

তাইজুল নিজেও বাঁহাতি স্পিনার। তাই দলে থাকলেও একাদশে ঠাঁই হচ্ছে না তার। স্কোয়াডে থেকেও জাতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামতে পারছেন না তাইজুল— বিষয়টি কি পোড়াচ্ছে এই তারকা স্পিনারের? তাইজুলের কথায় বোঝা গেল, মোটেই সে রকম নয়। তার কাছে, নিজের স্বার্থের চেয়ে দলের সাফল্য বড়।

শনিবার বিসিবির পাঠানো এক ভিডিওবার্তায় তাইজুল বলেন, ‘অনেক দিন ধরে খেলছি না। টিম কম্বিনেশনের কারণে হোক বা অন্য যে কোনো কারণে। গত তিন-চার মাসে অনেক ম্যাচ হয়েছে। আমি অবশ্য এ নিয়ে চিন্তিত নই। সুযোগ এলে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। আমি আমার কাজ সাধ্যমতো করে যাচ্ছি।

আসলে দলের স্বার্থকেই আমি বড় করে দেখি। দল ভালো করছে, এটা অনেক ভালো লাগার বিষয়।’ মুচকি হেসে বলেন, ‘আমার প্রতিদ্বন্দ্বীরাও অনেক ভালো করছে। সামনেও তারা অনেক ভালো করবে আশা করছি। আর আমি যখনই সুযোগ পাব, ভালো করার চেষ্টা করব।’

এমন মন্থর আর স্পিনসহায়ক উইকেটে স্পিনাররা তো ভালো করবেই- এমন মন্তব্যে ভেটো দিলেন তাইজুল। বললেন,‘স্পিনসহায়ক উইকেট হলেই স্পিনাররা ৫ উইকেট পাবেন, এটা ভুল ধারণা। উইকেট যেমনই হোক, ভালো জায়গায় বল করাটা গুরুত্বপূর্ণ।’ ‘ব্যাটসম্যান, বোলার, ফিল্ডাররা নিজেদের কাজটা করছে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে।

এটিই সাফল্য পাওয়ার মূল কারণ। সবাই একটা দল হিসাবে খেলছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ— সবাই নিজের দায়িত্ব পালন করছে। জিম্বাবুয়ের কন্ডিশন আমাদের জন্য সহজ ছিল না। সেখানে আমরা কিছু দিন অনুশীলন করার পর ভালো করেছি। আমাদের ব্যাটসম্যান, বোলাররা সব কিছু ঠিকঠাক করতে পেরেছে।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.