এবার ছাড়ব না, শোয়েবের হুমকি

সিরিজ বাতিল করে দেওয়ার নিউজিল্যান্ডের ওপর ফুঁসছে পুরো পাকিস্তান ক্রিকেটাঙ্গন। বোর্ডের চেয়ারম্যান রমিজ রাজা ক্ষোভ ঝেড়েছেন বেশ কয়েকবার। ক্ষোভ উগড়েছেন দলটির সাবেক ক্রিকেটার শোয়েব আখতারও। এবার মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রতিশোধ নেওয়ার কথা বললেন তিনি।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে শোয়েব আখতার বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের প্রথম ম্যাচ ভারতের সঙ্গে। এরপর সবচেয়ে বড় ম্যাচ ২৬ অক্টোবর, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। আমরা এবার ঝাঁপিয়ে পড়ব। এবার ছাড়ব না। কিউইদের বিপক্ষে রা’গটা মাঠেই দেখাবো। প্রথমে পিসিবি দলটা গু’ছিয়ে নিক। যে তিন-চারটে ছেলে দরকার, তাদের দলে নিয়ে নিক।

দলটা আমাদের মজবুত হয়ে যাবে। পাকিস্তান এর চেয়েও খারাপ সময় দেখেছে। কোনো ব্যাপার না। ফের আমরা ঘুরে দাঁড়াব।’ শোয়েব আখতার এর আগে বলেছিলেন, নিউজিল্যান্ড পাকিস্তানের ক্রিকেটকে হ-ত্যা করে ফেলেছে। নইলে ম্যাচ শুরু হওয়ার মিনিট দশেক আগে সিরিজ বাতিল করবে কেন! ১৭ সেপ্টেম্বর প্রথম ওয়ানডের কিছুক্ষণ আগে পাকিস্তানে সফর বাতিল করে নিউজিল্যান্ড। এরপর পিসিবি চেয়ারম্যান রমিজ রাজা কিউইদের মান’সিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন।

টুইটারে একরাশ ক্ষো’ভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, একটা বাজে দিন। খেলোয়াড় এবং সমর্থকদের জন্য খারাপ লাগছে। নিরাপত্তাহীনতার যুক্তি দিয়ে একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে একটা সফর বাতিল করে দেওয়াটা খুবই হতা’শাজনক ও বিরক্তিকর। বিশেষ করে, নিরাপত্তাহীনতার কারণটা কী, তা কিন্তু তারা বলেনি। কোন দুনিয়ায় বাস করে নিউজিল্যান্ড? তারা কিন্তু আইসিসিতে আমাদের জবাব শুনবে।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সফর বাতিলের পর ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডও (ইসিবি) পাকিস্তানে সফর বাতিল করে দিয়েছে। সিরিজ বাতিল করে ইসিবি বলছে, আমরা বুঝতে পারছি, পাকিস্তানের জন্য আমাদের এই সিদ্ধান্ত অনেক অসন্তোষজনক হবে। তারা আমাদের সঙ্গে সিরিজ আয়োজনের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে আসছে। নিরাপত্তাজনিত কারণ উল্লেখ করার পাশাপাশি বায়ো-বাবলে ইসিবি খেলোয়াড়দের মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিই বিবেচনা করছেন।

১৩ ও ১৪ অক্টোবর পাকিস্তান সফরে দুটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা ছিল ইংল্যান্ড পুরুষ দলের। নারী দলেরও পাকিস্তানে সিরিজ খেলার কথা ছিল। কিন্তু তার আগে সফরই বাতিল করে দিল ইসিবি। ইংল্যান্ড বিবৃতিতে আরও জানায়, আমরা জানি তাদের দেশে সফরে যাওয়া এই মুহূর্তে নিরাপদ নয়। বিষয়টি নিয়ে উৎকণ্ঠা রয়েছে। আমাদের খেলোয়াড়রাও করোনার এই সময়ে অনেক নাজুক অবস্থায় আছে। সে কারণে সিরিজটি আমরা খেলতে পারছি না।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.