ওয়ানডে সুপার লিগের মর্যাদা হারালো পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সিরিজ

১৮ বছর পর ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পাকিস্তান পৌঁছেছে নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল। এবারের সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ এবং পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে কিউইরা। তবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত হিসেবে গণ্য হচ্ছে না।

আসন্ন পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সিরিজে থাকছে না কোনো ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। যার দরুন ওয়ানডে সুপার লিগের মর্যাদা পাবে না তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি। কেননা আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ওয়ানডে সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত সিরিজে অবশ্যই থাকতে হবে ডিআরএস ব্যবস্থা।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এবং নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট (এনজেডসি) পারস্পরিক আলোচনা শেষে বিষয়টিতে সম্মত হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী বছর ফের পাকিস্তান সফর করবে নিউজিল্যান্ড এবং সে সময় অনুষ্ঠিতব্য তিন ম্যাচের সিরিজটি ওয়ানডে সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত হিসেবে গণ্য হবে।

এ প্রসঙ্গে আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে পিসিবি জানিয়েছে, “যেহেতু ২০২২/২৩ মৌসুমে নিউজিল্যান্ড দল ফের পাকিস্তানে দুটি টেস্ট এবং তিনটি ওয়ানডে খেলতে আসবে, তাই দুই বোর্ড সম্মত হয়েছে যে সেই সময়ের ৫০ ওভারের ম্যাচগুলো ২০২৩ সালের পুরুষদের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন ম্যাচ হিসেবে গণনা করা হবে।”

রাওয়ালপিন্ডিতে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে স্বাগতিক পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে নিউজিল্যান্ড। একই মাঠে আগামী ১৯ এবং ২১ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে। এরপর পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজটি আগামী ২৫, ২৬, ২৯ সেপ্টেম্বর এবং ১, ৩ অক্টোবর মাঠে গড়াবে। টি-টোয়েন্টি সিরিজের সবগুলো ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে।

Sharing is caring!