কারাগার থেকে গ্রাহকদের উদ্দেশে যা বললেন রাসেল

লো’ভনীয় অ’ফার দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে অর্থ আ’ত্মসা’তের অভিযোগে দায়েরকৃত মা’ম’লায় গত ১৬ সেপ্টেম্বর গ্রে’ফতার হয়ে বর্তমানে কারাবন্দি রয়েছেন বিতর্কিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল।কারাগার থেকে গ্রাহ’কদের উদ্দেশে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি।

রাসেল বলেছেন, সময় ও সুযোগ পেলে ৪ মাসের মধ্যেই সব জ’টিলতা গু’ছিয়ে তোলা সম্ভব। শনিবার বিকালে ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ই’ভ্যালি ডটকম বিডি থেকে একটি পোস্টের মাধ্যমে ইভ্যালির রাসেলের এ কথা জানানো হয়। ওই পোস্টে বলা হয়, আইনজীবীর মাধ্যমে ইভ্যালির সিইও রাসেলের কাছ থেকে ওই বক্তব্য পাওয়া গেছে।

গ্রাহকদের উদ্দেশে ইভ্যালির ওই ফেসবুক পোস্টে বলা হয়েছে, ‘সম্মানিত’ গ্রাহক- বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে আপনারা সবাই অবগত। ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার অংশীদার হয়ে দেশের অনলাইন কেনাকাটাকে সবার হাতের মুঠোয় নিয়ে যেতে আমরা অবিরাম কাজ করে যাচ্ছি। এই কাজকে আমরা এগিয়ে নিতে চাই।

সবার সহযোগিতায় ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চাই। এই সুযোগ পেলে সবার সব ধরনের অর্ডার ডেলিভারি দিতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ ছিলাম, আছি এবং থাকব। ইভ্যালির কর্মচারীরা বর্তমান পরিস্থিতিতে অজ্ঞাতনামা হিসেবে শঙ্কার মধ্যে দিন পার করছেন উল্লেখ করে পোস্টে বলা হয়, আমাদের ‘সম্মানিত’ সিইও এবং চেয়ারম্যান কারাগারে থাকায় আমাদের ব্যাংকিংও সাময়িকভাবে বন্ধ।

এমন পরিস্থিতিতে আমাদের সার্ভারসহ, অফিসের খরচ চালানো এবং আমাদের কর্মচারীদের দায়িত্ব নেওয়ার বিষয়গুলোতে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। ওই পোস্টে ইভ্যালির সার্ভার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে দ্রুত সার্ভার চালু করে দেওয়ার জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফেসবুক পোস্টে ইভ্যালির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, গ্রাহক ও সেলারদের স্বার্থ সুরক্ষায় ইভ্যালি সর্বোচ্চ সচেষ্ট। দেশীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিশ্বদরবারে প্রতিষ্ঠিত হতে গ্রাহকদের সব সময় পাশে পেয়েছে ইভ্যালি। এই ভালোবাসায় আমরা চিরকৃতজ্ঞ। সামনের দিনগুলোতেও এভাবে আপনাদের পাশে চাই। আপনাদের ভালোবাসার শক্তি আমাদের অদম্য পথচলার প্রেরণা। ইভ্যালির পাশে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.