কোহলির প্লেটে ডিম নিয়ে এত আলোচনা কেন?

এটা সবাই জানেন যে ফিটনেস ঠিক রাখতে কতটা কঠোর পরিশ্রম করেন বিরাট কোহলি। পছন্দের খাবার, এমনকি মাছ-মাংসও ছেড়ে দিয়েছেন। পাঞ্জাবি পরিবারের ছেলে। ছোটবেলা থেকেই মাংস, ডিম তার জন্য চারবেলা বরাদ্দ ছিল।

স্রেফ দেশের হয়ে সেরাটা দেওয়ার স্বার্থে সেই বিরাট কোহলি কয়েক বছর আগে সব আমিষ খাবার ছেড়ে দেন। সেই কোহলির প্লেটে অবশ্য আমিষ হিসেবে ডিমের উপস্থিতি দেখা গেছে। সেটা নিয়েই সোশাল সাইটে ব্যাপক আলোচনা।

ইংল্যান্ড সফরের আগে কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় ইনস্টাগ্রামে ভক্তদের সঙ্গে কথা বলেন কোহলি। অনুষ্ঠানের নাম দেওয়া হয়েছিল ‘আস্ক মি এনিথিং’। সেখানে এক ভক্ত তাকে জিজ্ঞেস করেন, ‘আচ্ছা আপনি এখন কোন ধরনের খাবার খাচ্ছেন?’

জবাবে কোহলি বলেন, ‘প্রচুর শাক সবজি, কয়েকটা ডিম, দুই কাপ কফি, কুইনোয়া, প্রচুর পালং শাক এবং দোসা। আমার দোসা খেতে খুব ভালো লাগে। তবে সব খাবার পরিমাণমতো খাই’। জানা যায়, স্ত্রী আনুশকা শর্মাই নাকি কোহলিকে নিরামিশ খাওয়ার ব্যাপারে রাজি করিয়েছিলেন।

তবে আমিষ থেকে তার নিরামিষাশী হওয়ার আরো একটা কারণ আছে। সেই বিষয়ে কোহলি বলেন, ‘২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেঞ্চুরিয়ানে টেস্ট খেলার সময় হঠাৎ মেরুদণ্ডে ব্যথা শুরু হয়। ফলে ব্যাট করতে সমস্যা হচ্ছিল। এর মধ্যে শুরু হলো পেটের গোলমাল।

সঙ্গে বাড়ল ইউরিক এসিড। এর পর থেকে ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে মাংস খাওয়া ছেড়ে দিলাম। এতে দারুণ উপকার হয়েছে। এখন একেবারে সুস্থ আছি’। যাই হোক, মাছ-মাংস ছাড়লেও কোহলিকে পুরোপুরি নিরামিষাশী হিসেবে ঘোষণা করা যাচ্ছে না। তাই তাকে নিয়ে সোশাল সাইটে এত আলোচনা।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.