খিচুড়ি রান্নার প্রশিক্ষণ নিয়ে যা বললেন সচিব

খিচুড়ি রান্না শিখতে সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশে পাঠানোর প্রস্তাবনার খবরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে বিষয়টি পরিস্কার করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হোসেন। সচিব বলেন, খিচুড়ি রান্না শেখার জন্য প্রশিক্ষণ নয়; প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের জন্য স্বাস্থ্যসম্মতভাবে খাবার পরিবেশনের ব্যবস্থাপনা দেখতে কর্মকর্তাদের বিদেশ পাঠানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

খিচুড়ি কীভাবে রান্না করে- সেটার জন্য আমরা বিদেশে লোক পাঠাচ্ছি না। এ প্রকল্পটি এখনও অনুমোদন হয়নি। মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন। তিনি বলেন, যে কোনো প্রকল্পে দেশে-বিদেশে কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের বিধান রয়েছে। সচিবের ভাষ্য, স্কুল ফিডিং পলিসির আওতায় প্রস্তাবিত প্রকল্পে বিদেশে প্রশিক্ষণে যে ব্যয় হবে তা অপচয় নয়, এটা কর্মকর্তাদের কর্মদক্ষতা বাড়াবে।

গেল সোমবার গণমাধ্যমে খবর আসে, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো ডিপিপিতে সারা দেশে মাঠ পর্যায়ের প্রায় ১ হাজার কর্মকর্তাকে খিচুড়ি রান্না শিখতে এক হাজার কর্মকর্তাকে বিদেশে পাঠানো হচ্ছে।সচিব বলেন, আমরা খিচুড়ি রান্না করার জন্য কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে বিদেশে পাঠাচ্ছি না। আমরা এটার জন্য টাকাও চাইনি। কোনো একটা পত্রিকা লিখেছে যে ৫-১০ কোটি টাকা চেয়েছি, নো।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, মন্ত্রিসভায় স্কুল ফিডিং পলিসি অনুমোদিত হয়েছে। এই পলিসির ভিত্তিতে ১৯ হাজার ২৯৬ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে দাখিল করেছি। এই প্রকল্পে দুটি বিষয় আছে। বাচ্চাদের আমরা দুপুর বেলা খাবার দেব। এরমধ্যে তিনদিন বিস্কুট ও তিনদিন দেব রান্না করা খাবার। বর্তমানে ছয়দিন বিস্কুট দেয়া হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*