খেপেছেন আর্জেন্টিনার কোচ

এভাবে ম্যাচ স্থগিত হয়ে যাবে, ঘুণাক্ষরেও ভেবেছিলেন আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি? এমিলিয়ানো মার্তিনেজ, ক্রিস্টিয়ান রোমেরো, জোভান্নি লো সেলসো, এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়াদের ম্যাচ খেলা নিয়ে সংশয় ছিলই। কিন্তু তা সত্ত্বেও ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্তারা যেহেতু কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেননি, তাই কোয়ারেন্টিন না মানা এই চার খেলোয়াড়কে মাঠে নামিয়েছিল আর্জেন্টিনা। বলা বাহুল্য, আরও তিন দিন আগে থেকেই ব্রাজিলে আছেন এই চারজন।

খাচ্ছেন-দাচ্ছেন, ঘুরছেন-ফিরছেন, অনুশীলন করছেন। অবশেষে ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধান এজেন্সির কর্তাদের ঘুম ভাঙল ম্যাচ শুরুর পর! ম্যাচ শুরু হয়ে যাওয়ার পর মার্তিনেজদের ধরতে মাঠে ঢুকে পড়েন দেশটার একাধিক স্বাস্থ্যকর্তা। এসেছিলেন বেশ কিছু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যও। আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়দের সঙ্গে হাতাহাতিও হয় তাঁদের।

শেষমেশ ড্রেসিংরুমে ফিরে যান আর্জেন্টাইন তারকারা। ম্যাচ স্থগিত হয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর মাঠ ছেড়ে ড্রেসিংরুমে চলে যান আর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা। এভাবে মাঝপথে ব্রাজিলিয়ান স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে রীতিমত খেপেছেন আর্জেন্টিনা দলের কোচ লিওনেল স্কালোনি। তার দাবি, ম্যাচের আগে জানানোই হয়নি যে এই চার ফুটবলার খেলতে পারবে না।

ক্ষুব্ধ স্কালোনি বলেন, ‌‌‌’একবারও আমাদের জানানো হয়নি যে তারা ম্যাচটি খেলতে পারবে না। আমরা ম্যাচটি খেলতে চেয়েছিলাম, ব্রাজিলিয়ান ফুটবলাররাও।’ ম্যাচটি শেষ হলে পুরো বিশ্বের ফুটবল ভক্তরাই খুশি হতো, উল্লেখ করে আর্জেন্টাইন কোচ বলেন, ‘বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের খেলা উপভোগ করতে পারলে এটা দারুণ হতো। আমি চাইব আর্জেন্টিনার মানুষ যেন বুঝতে পারে।

Sharing is caring!