গণপরিবহণে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবেন যেভাবে

আগামী ৩১ মে থেকে শুরু হচ্ছে অফিস আদালত। শুরু হচ্ছে নাগরিক ব্যস্ততা। যোগাযোগ ও পরিবহণের জন্য সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চালু করার কথাও বলা হচ্ছে। প্রয়োজন ও অফিস আদালতে যাওয়ার তাগিদে আপনাকে গণপরিবহন ব্যবহার করতে হচ্ছেই।

তাই নিজের সুরক্ষা নিজেকেই নিশ্চিত করতে হবে। তাই চলুন জেনে নেই কিভাবে গণপরিবহনে যাত্রাকালে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবেন।গণপরিবহনে উঠার আগে অবশ্যই মাস্ক ও গ্লাভস ব্যবহার করুন।

সেইসাথে নিজেকে আরও ভালো করে সুরক্ষিত রাখতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে নিন। গণপরিবহনে উঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বসার চেষ্টা করুন।

যদি আপনার সহযাত্রী সামাজিক দূরত্ব মানছেন না বলে আপনার মনে হয়, তাকে একটু দূরে সড়ে বসতে আহ্বান জানান। সামাজিক দূরত্ব সবার জন্যই দরকারি এই বিষয়টি তাকে বুঝিয়ে বলুন।

গণপরিবহনে যাত্রাকালে যতটুকু সম্ভব শালীনতা বজায় রেখে চলাচল করুন। হাঁচি, কাশি, কফ ফেলা, হাই তোলা ইত্যাদি কাজগুলো এড়িয়ে চলুন। কিংবা প্রয়োজন হলে শালীনতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাঁচি দিন।

তবে এগুলো পরিহার করতে পারাটাই ভালো। এতে করে ঝামেলা সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম। না হয় ঝামেলার সৃষ্টি হতে পারে, কারণ করোনার কারণে সবাই এখন ভীত।

আপনার নির্দিষ্টও গন্তব্যে নেমে আবার ভালোভাবে হাত ধুয়ে নিন। সাবান বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে ভুলবেন না। যদি সম্ভব হয়, তবে গোসল দিয়ে নিন। পড়নে থাকা জামা কাপড় ভালোভাবে সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

যতটুকু পারেন নিজেকে সুরক্ষিত রাখার চেষ্টা করুন, সুরক্ষিত রাখুন। আর অসুস্থতাবোধ করলে গণপরিবহন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। যেহেতু গণপরিবহন ব্যবহার করতেই হচ্ছে তাই সাধারণ এই স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে ব্যবহার করুন। আর তা না হলে পরিস্থিতি হয়তো বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *