গতির কারণে রাহীর বদলে একাদশে ছিলেন এবাদত

গতির কারণে রাহীর বদলে একাদশে ছিলেন এবাদত

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের সদ্য সমাপ্ত হারারে টেস্টে খেলা হয়নি আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীর। টেস্টে দেশের সবচেয়ে ধারাবাহিক পেসার হিসেবে গণ্য করা হয় তাকে। তবে তাকে একাদশ থেকে বাদ দিয়ে এই ম্যাচে নেওয়া হয় এবাদত হোসেন চৌধুরীকে।

টেস্টে দেশের সেরা বোলারদের তালিকা করলে রাহীর পরই হয়ত থাকবে এবাদতের নাম। তবে হারারে টেস্টে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি এই পেসার। এ নিয়ে সমালোচিতও হয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

আরো পড়ুন>>… – রিয়াদের শেষ টেস্টের জয় তাকেই উৎসর্গ করল দল

ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মুমিনুল হক জানান রাহীর বদলে এবাদতকে একাদশে নেওয়ার কারণ। তিনি বলেন, ‘উইকেট ফ্ল্যাট ছিল, স্লো ছিল। পাঁচ দিন খেলা দেখলে বুঝবেন। কম্বিনেশন অনুযায়ী জোরে বল করতে পারবে এমন পেস বোলার দরকার ছিল। স্লো উইকেটে আমার কাছে মনে হয়েছে রাহীর চেয়ে (এবাদত ভালো হবে)… এমন হয় রাহীকে আমরা একেবারে ফেলে দিয়েছি। এই উইকেটে জোরে পেস বোলার দরকার ছিল। এজন্য এবাদত প্রাধান্য পেয়েছে।’শেষ দিন জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৭ উইকেট। এজন্ত টাইগারদের বল করতে হয়েছে ৫৪.৪ ওভার। আরেকটু হলে ম্যাচ চলে যেত শেষ সেশনে।

শেষদিন আরও দ্রুত জয় পাওয়া সম্ভব ছিল কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে মুমিনুল বলেন, ‘একটু কঠিন হত। প্রথম দিনের পর থেকে উইকেট ফ্ল্যাট হচ্ছিল। বেশি তাড়াহুড়া করতে গেলে রান বেশি হয়ে যেত। রানও আটকাতে হবে সময়ও বেশি নিতে হবে। বেশি তাড়াহুড়া করতে গেলে রান বেশি হত, তখন আরও আমাদের ওপর চাপ পড়ত। এমন তো না বল করলেন আর উইকেট পড়ে গেল। এরকম ফ্ল্যাট উইকেটে সময় নিয়ে বল করলে সহজ হয়। বোলাররা খুবই ভালো বল করেছে।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.