গয়েশ্বরের বক্তব্যের জবাবে যা বললেন এনামুল হক শামীম

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, নির্বাচনের আগে নাকি সরকারের পতন ঘটাবে। বিএনপিরকে বলতে চাই, আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানোর ক্ষমতা বিএনপির নাই। ক্ষমতায় থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লু’টেপু’টে খেয়েছে। আর বিরোধী দলে থেকে আন্দোলনের নামে বো’মাবা’জি করেছে, পে’ট্রলবো’মা মে’রে মানুষ মে’রেছে।

যারা নিজেদের নেত্রীকে কারাগার থেকে মুক্ত করার ক্ষমতা রাখে না তার আওয়ামী লীগকে আন্দেলনের ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ নেই। বৃহস্পতিবার শরীয়তপুরের নড়িয়ায় পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত অসহায় ও দুস্থদের মাঝে চেক বিতরণ অনুষ্ঠনে উপমন্ত্রী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের দেওয়া বক্তব্যের জবাবে এসব কথা বলেন। উপজেলা শহীদ মিনার চত্বরে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের অর্থায়নে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এর আগে বুধবার বিকালে খুলনার ডুমুরিয়ায় গুটুদিয়া ফুটবল মাঠে গণসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আমরা প্রথম রাউন্ডে ১৪৪ ধারা অতিক্রম করে সভা সমাবেশ করেছি। করোনার কারণে নানা বিধিনিষেধ দেওয়া হয়েছে। আমরা দ্বিতীয় রাউন্ডে এর উপায় খুঁজে বের করব। তৃতীয় ধাপে সরকার পালানোর সুযোগ পাবে না।

এনামুল হক শামীম বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনাকে নৌকায় ভোট দিয়ে পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। গয়েশ্বরকে উদ্দ্যেশ করে তিনি আরো বলেন, আন্দোলন কত প্রকার ও কী কী তা একমাত্র আওয়ামী লীগ জানে।

বাংলাদেশে আর কেউ জানে না। কারণ সরকারে আওয়ামী লীগ ও রাজপথে আওয়ামী লীগ। যারা বাংলাদেশের কোনো জেলায় ও উপজেলায় একটি মিছিল মিটিং করার ক্ষমতা নাই। তারা আবার বড় বড় কথা বলেন। বিএনপির পায়ের নিচে মাটি নাই। বিএনপির নেতাকর্মীরদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নেত্রীকে বিদেশ পাঠাতে চান।

খালেদা জিয়ার সুস্থতার চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। প্রয়োজনে বিদেশ থেকে ডাক্তার এনে তাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। সে দিকে নাই, একটা সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাইকোট জামিন দেয় নাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দয়ায় তিনি আজ বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তিনি সুস্থ হোক এটা আমরাও চাই। কিন্তু এই অসুস্থতা নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করে কোনো লাভ নেই।

এর আগে নড়িয়া উপজেলার মাতৃছায়া হল রুমে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় বক্তব্য দেন উপমন্ত্রী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাসেদুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, নড়িয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. আহাদী হোসেন ও নড়িয়া উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানরা।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.