চকলেট ব্যাঙের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

অস্ট্রেলিয়ার একদল বিজ্ঞানী নিউ গিনির নিম্নাঞ্চলের চিরহরিৎ বনে বিশেষ প্রজাতির গেছো এক চকলেট ব্যাঙের সন্ধান পেয়েছেন।গেছো ব্যাঙগুলো সাধারণত সবুজ রঙের হয়। কিন্তু নতুন সন্ধান পাওয়া ব্যাঙটির ত্বকের রং চকলেটের মতো গাঢ় খয়েরি বলে এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘চকলেট ব্যাঙ’।

‘সেন্টার ফর প্লানেটারি হেলথ অ্যান্ড ফুড সিকিউরিটি অ্যান্ড কুইন্সল্যান্ড মিউজিয়াম’ এর গবেষক পল ওলিভার এক বিবৃতিতে বলেছেন, চকলেট ব্যাঙের আরেকটি সমগোত্রীয় প্রজাতি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সবুজ গেছো ব্যাঙ ‘লিটোরিয়া ক্যারুলেয়া’। দুটি প্রজাতি দেখতে একই রকম। পার্থক্য শুধু রঙে।

সিএনএন-কে ওলিভার বলেন, চমৎকার চকলেট রঙ হওয়ায় নতুন ব্যাঙটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘লিটোরিয়া মিরা’। লাতিন ভাষায় যার অর্থ ‘বিস্ময়কর’ বা ‘অদ্ভুত’। কারণ, এই ব্যাঙ খুঁজে পেয়ে গবেষকরা সত্যিই অবাক হয়ে গেছেন।

সিএনএন পল ওলিভার ‘অস্ট্রেলিয়ান জার্নাল অব জুওলজি’তে প্রকাশিত গবেষণা প্রতিবেদনে নতুন সন্ধান পাওয়া ব্যাঙ সম্পর্কে লিখেছেন।
আর ব্যাঙটি নিয়ে ‘সাউথ অস্ট্রেলিয়ান মিউজিয়াম’-এর গবেষক স্টিভ রিচার্ডস বলেছেন, চকলেট ব্যাঙ উষ্ণ জলাভূমি এলাকায় বাস করে, যেসব জায়গায় থাকে প্রচুর কুমির। তাই এই প্রজাতির ব্যাঙের অনুসন্ধান কাজে অনেকে আগ্রহী হয় না।

লাখ লাখ বছর আগে একসময় অস্ট্রেলিয়া ও নিউগিনির ভূখণ্ড সংযুক্ত ছিল। কিন্তু এখন নিউ গিনিতে প্রচুর চিরহরিৎ বন আছে। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চল প্রধানত তৃণভূমি। উত্তর ও পূর্ব অস্ট্রেলিয়া এবং নিউ গিনির এই বনাঞ্চলজুড়ে সবুজ রঙের গেছো ব্যাঙ (লিটোরিয়া ক্যারুলেয়া) দেখতে পাওয়া যায়।

অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা ২০১৬ সালে এই প্রজাতির গেছো ব্যাঙের সন্ধান পান। তখনই তাদের মনে হয়েছিল, একই ধরনের ব্যাঙ নিউ গিনিতেও থাকতে পারে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.