চার পুরুষের বিপক্ষে লড়ছেন তৃপ্তি

পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চারজন পুরুষ চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিপক্ষে ভোটের মাঠে লড়ছেন এক নারী। নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন তিনি। যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে, দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। পুরুষ প্রতিদ্বন্দ্বিদের তুলনায় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় কোনো অংশেই পিছিয়ে নেই তিনি। ভোটারদের কাছ থেকে পাচ্ছেনও ব্যাপক সাড়া।

উপজেলায় ছয়টি ইউনিয়নের মধ্যে একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী তিনি। এছাড়া উপজেলায় তিনিই একমাত্র নারী যিনি নির্বাচেন এই প্রথম চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। এর আগে কোনো নারী ইউপি চেয়ারম্যান পদে এ উপজেলায় নির্বাচন করেননি। ফলে শুধু ঐ ইউনিয়নই নয়, পুরো উপজেলাবাসীর দৃষ্টি এখন তার দিকে।

তার নাম নাহিদ সুলতানা তৃপ্তি। তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। তৃপ্তি সান্তাহার ইউনিয়নের ছাতনী গ্রামের বাসিন্দা। তৃপ্তির প্রতিদ্বন্দ্বী পুরুষ প্রার্থীরা হলেন- মোটর সাইকেল প্রতীকে বিএনপির নেতা মোজাহার হোসেন পিন্টু, আনারস প্রতীকে রবিউল ইসলাম, লাঙল প্রতীকে জাতীয় পার্টি সমর্থিত মুক্তার হোসেন মল্লিক ও হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সমর্থিত আব্দুস সালাম।

কথা হয় চেয়ারম্যান প্রার্থী তৃপ্তির সঙ্গে। তিনি জানান, সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীরা অবদান রাখছেন। এখন সময় এসেছে নারীদের সামেন এগিয়ে যাওয়ার। ইউনিয়নের ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। বিশেষ করে নারীরা তার পাশে আছেন।

তিনি আরও জানান, নির্বাচিত হলে তার মূল লক্ষ্য হবে নারী অধিকার নিশ্চিত করা। বাল্যবিবাহ, নারী ও শিশু নি’র্যাত’ন বন্ধ করা। এছাড়া মাতৃত্বকালীন, বয়স্ক, বিধবাসহ সব সুবিধাভোগী বাছাই ও কার্ড বিতরণে অনিয়ম দূর করা হবে এবং পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠেীকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে চান তিনি।

সান্তাহার ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ জানান, ইউনিয়নের দলীয় সব নেতাকর্মী নৌকা প্রতীকের বিজয়ের জন্য তৃপ্তির পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছেন। আমরা আশাবাদী জয় আমাদেরই। ইউনিয়নের সাধারণ জনগণ আমার পক্ষে কাজ করছেন।

বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সান্তাহার ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম মন্টু জানান, উপজেলায় ইতিহাসে এবারই প্রথম চেয়ারম্যান পদে একজন নারী নির্বাচনে মাঠে লড়ছেন। দলীয় নির্দেশনায় তাকে জয়ী করতে সবাই (নেতাকর্মী) একযোগে কাজ করছেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপে আদমদীঘি উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে নির্বাচিত অনুষ্ঠিত হবে। এ উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নে ভোটার ২১ হাজার ৫৯৫ জন। এরমধ্যে নারী ভোটার রয়েছেন ১০ হাজার ৭৪৮ জন ও পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ৮৪৭ জন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.