ছক্কা মারলেই ব্যাট দিয়ে পেটাব

পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদেরই মাঠে ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন ভারতের মারকুটে ব্যাটসম্যান বীরেন্দ্র শেবাগ। যা ছিল ক্রিকেটে প্রথম কোনো ভারতীয়র তিন শতক। ২০০৪ সালের মুলতান টেস্টে শেবাগের দুর্দান্ত সেই ইনিংস ক্রিকেট ইতিহাসে অবিস্মরণীয়।

প্রায় ২২ বছর পর সেই অবিস্মরণীয় ইনিংসের স্মৃতিচারণ করলেন ভারতের সাবেক ওপেনার। সেই সঙ্গে নিজের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরির সেই ইনিংসে ঘটা মজাদার এক গল্প শেয়ার করলেন শেবাগ। তিনি জানালেন, সেই টেস্টে সতীর্থ শচীন টেন্ডুলকার নাকি তাকে শাসিয়েছিলেন এই বলে যে, ছক্কা মারলেই ব্যাট দিয়ে পেটাবেন।

শেবাগ জানান, শোয়েব আখতারের পর পর দুটি ডেলিভারিতে চার ও ছক্কা মেরে ব্যক্তিগত শতরান পূর্ণ করেন শেবাগ। এ সময় দ্রুত ২ উইকেট পড়ে যায়। আউট হয়ে যান আকাশ চোপড়া ও রাহুল দ্রাবিড়। শেবাগ যখন ব্যক্তিগত ১১৭ রানে, তখন ব্যাটিংয়ে নামেন শচীন।

হঠাৎ ২ উইকেট পড়ে যাওয়ায় দেখেশুনে খেলার পরিকল্পনা নেন শচীন। কিন্তু শচীন জানেন, এটা শেবাগের স্বভাববিরুদ্ধ। টেস্ট হোক আর ওয়ানডে, শেবাগ মারমুখি হয়েই খেলেন। কিন্তু এ মুহূর্তে সেটি করা যাবে না। তাই শেবাগকে সতর্ক করেন শচীন, ‘ছক্কা মারা যাবে না এখন। যদি ছক্কা মেরেছ, তবে আমি ব্যাট দিয়ে পেটাব তোমাকে।’

শচীনের সতর্কবার্তা নিদের্শের মতোই মান্য করেন শেবাগ। নিজের রান ৩০০-র কাছাকাছি নিয়ে ঠেকান। ওই সময় শচীন আবার সতর্ক করেন, ‘ছক্কা মারবে না বলে দিলাম। ওটা করতে গিয়ে আউট হলে প্রথম ভারতীয় হিসেবে ট্রিপল সেঞ্চুরি করার সুযোগ নষ্ট হবে তোমার।’ কিন্তু এই বেলায় শচীনের কথা শোনেননি শেবাগ। সাকলাইন মোশতাককে ছক্কা হাঁকিয়ে ট্রিপল সেঞ্চুরি করেন তিনি।

Sharing is caring!