নির্ধারিত ভাড়া ৪৩, ৫০ টাকাই নেবেন মালিকরা

পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের পর টিকিটপ্রতি ৫০ টাকা ভাড়া নিয়েই ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বাস চলাচল করবে। যদিও এ রুটের সরকার নির্ধারিত ভাড়া ৪৩ টাকা। রোববার (৭ নভেম্বর) রাতে পরিবহন মালিকরা বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। এ বিষয়ে পরিবহন মালিকদের দাবি, শুধু তেল নয়, সব কিছুর দামই বেড়েছে।

যে কারণে আগের ভাড়াই তারা পোষাতে পারছিলেন না। তাই এখন ৫০ টাকা নির্ধারণ করেছেন! এর আগে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে কোনো ঘোষণা ছাড়াই রাতারাতি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চলাচলকারী কয়েকটি পরিবহনের বাস ভাড়া টিকিটপ্রতি ১৪ বাড়ানো হয়। যা সাধারণ যাত্রীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি করে।

এর একদিন পরই সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও পরিবহন ধর্মঘটে যান মালিকরা। গত দুইদিন ধরে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বাস চলাচল বন্ধ ছিল। তবে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের পর সোমবার সকাল থেকে ১৪ টাকা ভাড়া বাড়িয়েই যাত্রী পরিবহন করবে বাসগুলো। এ বিষয়ে বন্ধন পরিবহনের চেয়ারম্যান মো. জুয়েল হোসেন বলেন, ‘সরকার আমাদের যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছে আমরা সেই অনুযায়ী ভাড়া বাড়িয়েছি।

সরকারের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে কিলোমিটারপ্রতি ২ টাকা ১৫ পয়সা করে ভাড়া নিতে। এখান থেকে ঢাকার দূরত্ব ২০ কিলোমিটার। সে হিসেবে ভাড়া হয় ৪৩ টাকা। পিক আওয়ার আর অফ-পিক আওয়ার অ্যাভারেজে আমরা ৫০ জন যাত্রী পরিবহন করি। আমাদের টোল লাগে ৫২০ টাকা। সব মিলিয়ে ৫০ টাকা নির্ধারণ করেছি।

আমরা ৫টি কোম্পানির মালিক বসে ভাড়া নির্ধারণ করেছি।’ তিনি আরও বলেন, আমাদের বাসের চাকার দাম ছিল ৪৫ হাজার টাকা। সেই চাকা বর্তমানে ৫৬ হাজার টাকা। সরকার আমাদের কাছ থেকে প্রতিবছর ফিটনেস ফি ১০ হাজার ১০৫ টাকা নিত। এখন সেটা ৩৬ হাজার ৬০৫ টাকা। সব বিবেচনা করেই ভাড়া নির্ধারণ করেছি।

গত ৩ নভেম্বর রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়িয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে। নতুন দাম ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা করা হয়েছে, যা বৃহস্পতিবার থেকে কার্যকর হয়। ডিজেল-কেরোসিনের দাম বাড়ানোর পরদিনই পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা এ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এরপর ৫ নভেম্বর (শুক্রবার) ভোর ৬টা থেকে রাজধানীসহ সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু করে বাস-ট্রাকসহ পণ্যবাহী যানবাহনের মালিকরা। এতে সারাদেশে ব্যাপক দুর্ভোগের মধ্যে পড়ে সাধারণ মানুষ। এরপর রোববার (৭ নভেম্বর) রাতে ডিজেলচালিত বাস ও মিনিবাসের ভাড়া সমন্বয় করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.