নির্বাচকদের সিদ্ধান্তে ক্যারিয়ার সঙ্কটের শঙ্কায় সাইফ

দুই ম্যাচ খেলেই টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়া সাইফ হাসান এখন ট্রলিংয়ের শিকার হচ্ছেন সামাজিক মাধ্যমে। ২ ম্যাচে মাত্র ১ রান করা এই ওপেনার প্রস্তুত হচ্ছিলেন টেস্ট ম্যাচ খেলার জন্য। তাকে হঠাৎ টি-টোয়েন্টি দলে রেখে বড় এক চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেন নির্বাচকরা। এখন বলির পাঁঠা হয়ে ক্যারিয়ার সঙ্কটে পড়তে পারে এই ওপেনারের।

বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর নতুন উদ্যমে ঘুরে দাঁড়ানোর ডাক দেয় বিসিবি। সেই ডাকে বলির পাঠা হলেন মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। তাদের জায়গায় পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে টপ অর্ডারের জন্য ডাকা হলো নাজমুল শান্ত, সাইফ হাসানদের। তবে এখানে সবচেয়ে বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছে সাইফ হাসান নামটি।

ঘরোয়া আসরে এখন পর্যন্ত ৩০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন সাইফ। সেখানেও আহামরি কোনো পারফরমেন্স নেই এই ব্যাটারের। বিপিএল কিংবা সবশেষ ৫ টি-টোয়েন্টিতেও সাইফের ঝুলিতে বলার মতো কিছু নেই। তারপরও বিশ্বকাপে উড়তে থাকা পাকিস্তানের বিপক্ষে অভিষেক করিয়ে দেয়া হলো তার। যার ফল ২ ম্যাচে ১ রান।

এনসিএলে ভালোই খেলছিলেন সাইফ। টেস্টের জন্যই প্রস্তুত হচ্ছিলেন তিনি। সেখান থেকে কেন তাকে টেনে আনা হলো, কেনই বা পরিকল্পনাহীন যুদ্ধে নামিয়ে দেয়া হলো সাইফকে, তার ভালো উত্তর জানা থাকার কথা নির্বাচকদের।

কিন্তু সাইফ যে মানসিক ধাক্কা খেলেন, সামাজিক মাধ্যমে যেভাবে ট্রলের শিকার হচ্ছেন তিনি, তাতে টেস্ট ম্যাচ পরিকল্পনায় তার থাকাটাও ঢেকে গেল অনিশ্চয়তার চাদরে। আর যদি টেস্ট স্কোয়াডে তিনি থেকেও থাকেন, তবে মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকতে পারবেন কিনা তা নিয়েও থেকে যায় প্রশ্ন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.