পাকিস্তানের কাছে ক্ষমা চাইলেন তালেবান মুখপাত্র!

পাকিস্তানের ত্রাণবাহী ট্রাক থেকে দেশটির পতাকা নামিয়ে ফেলায় তা’লেবান সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়েছে তালেবান কর্তৃপক্ষ। প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী নিয়ে তোরখাম সীমান্ত দিয়ে আফগানিস্তানে প্রবেশ করে ট্রাকটি। রোববার তা’লেবা’ন সরকারের প্রতি মা’নবিক সাহায্য হিসেবে ১৭টি কনটেইনার ট্রাক পাঠায় পাকিস্তান।

ত্রাণ পাওয়ার পর এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে পাক-আফগান সহযোগিতা ফোরামের চেয়ারম্যান হাবিবুল্লাহ খান বলেন, আফগানিস্তানের জনগণ যখন যু’দ্ধ-বিধ্ব’স্ত ও দরিদ্রতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তখন পাকিস্তানের এই সহায়তা অত্যন্ত জরুরি ভূমিকা রাখবে। যাই হোক, পাকিস্তানের ত্রাণবাহী একটি ট্রাক থেক পাকিস্তানের পতাকা জোর জবরদস্তিমূলক নামিয়ে ফেলে কয়েকজন তা’লেবা’ন সেনা। এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

দ্য ডন বলছে, ভিডিওতে দেখা যায়- সাধারণ নাগরিক এবং তা’লেবান যো’দ্ধা’দের বলছেন, পতাকা ছিঁ’ড়ে ফেল। পতাকাটি সরিয়ে নেওয়ার সাথে সাথে উচ্চস্বরে আল্লাহু আকবার স্লোগানও দেন তারা। এ সময় একজন তা’লেবান যো’দ্ধা বলে ওঠেন, এই পতাকা পু’ড়িয়ে ফে’লা উচিত।

ভিডিওটির প্রতিক্রিয়ায় তা’লেবা’ন মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইসলামিক আমিরাতের পুরো মন্ত্রিসভা এই ঘটনায় ম’র্মাহ’ত। তিনি বলেন, এই ঘট’না অবশ্যই আমাদের প্রতিবেশী দেশের অনুভূতিতে আ’ঘা’ত করেছে, যার জন্য আমরা ক্ষমা চাইছি। তিনি বলেন, ঘট’নায় জড়িত কর্মকর্তাদের গ্রে’প্তার ও তাদের অ’স্ত্র জব্দ করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী তাদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ঘটনা এমন সময় ঘট’ল, যখন পাকিস্তানই একমাত্র দেশ, যারা তালে’বানকে স্বীকৃতি দিয়েছে এবং আফগান জনগণের প্রতি তারা সহানুভূতি প্রকাশ করেছে বার বার। এ কারণেই ত্রাণবাহী গাড়ি থেকে পাকিস্তানের পতাকা নামানোর ঘটনা তা’লেবানের মনেও আ’ঘা’ত দি’য়েছে। আর সাথে সাথে আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে।

তালে’বান সরকারের একমাত্র ঘ’নিষ্ঠ মিত্র হিসেবে পাকি’স্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও প্রমাণ দেখিয়েছেন। চলতি সপ্তাহে তিনি তা’লেবান সরকারের সমর্থনে আনুষ্ঠানিক বক্তব্যও দিয়েছেন। নিউইয়র্কে চলমান জাতিসংঘ অধিবেশনেও পাকিস্তান তা’লেবানের পক্ষ নিয়েছে। আর এ কারণে সার্ক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক বাতিল করা হয়েছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.