পেঁয়াজ নিয়ে বাংলাদেশিদের ক্ষোভ যেভাবে দেখছে ভারতীয় মিডিয়া

ভারত সরকার অনির্দিষ্টকালের জন্য পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ঘোষণা করার পরপরই হঠাৎ করে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম অনেক বেড়ে গেছে। লাফিয়ে লাফিয়ে পেঁয়াজের দাম বাড়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ।

পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করা নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশিদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে বলে খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় মিডিয়া। এতে বলা হয়, পদ্মার ইলিশ দেয়ার দিনেই ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করায় বাংলাদেশের কয়েকটি স্থানে এর দাম বেড়েছে কয়েকগুণ। এ নিয়ে দেশটির জনগণ ভারতের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

পদ্মার ইলিশ দিয়েই হারাতে হল পেঁয়াজ! ক্ষোভে ফুঁসছে বাংলাদেশ’ এমন শিরোনামে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জি২৪ ঘণ্টা একটি খবর প্রকাশ করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, রপ্তানি বন্ধ হওয়ায় বাংলাদেশের অনেক জায়গায় পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ৮০ থেকে ১০০ টাকায় পৌঁছেছে। আগামী কয়েকদিনে পেঁয়াজের দাম সেখানে আকাশছোঁয়া হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বরও পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করেছিল ভারত। তার পর থেকে বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিক বেড়ে যায়। এমনকী হাসিনার সরকারও দেশবাসীকে পরামর্শ দেয়, পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করা শিখতে পারলে ভাল! এবারও একই অবস্থা হতে পারে বাংলাদেশে।

জি২৪ এর খবরে বলা হয়েছে, ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করায় বাংলাদেশে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। বাংলাদেশি জনগণ ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতের বিরুদ্ধে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। বলা হচ্ছে, ভারতে ইলিশ পাঠানোর কী দরকার ছিল বাংলাদেশের! যেখানে ভারত এই নিয়ে পর পর দুবছর পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করল! তা হলে আর সুসম্পর্ক বজায় রাখার প্রশ্ন আসছে কোথা থেকে!

পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক আগাগোড়া খারাপ ভারতের। তবে নতুন করে চীন ও নেপালের সঙ্গেও সম্পর্ক তলানিতে ঠেকেছে এদেশের। এমনকী বেশ কিছু ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কেও জটিলতা তৈরি হয়েছিল বলেও দাবি করছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *