প্যারিসে বিলাসবহুল বাড়ি কিনছেন মেসি

এই মৌসুমে বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইতে (পিএসজি) পাড়ি জমিয়েছেন লিওনেল মেসি। পিএসজির জার্সিতে অভিষেকও হয়েছে তার। কিন্তু এখনো প্যারিসে স্থায়ী নিবাস খুঁজে পাননি আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। যদিও তার স্ত্রী অ্যান্তনেল্লা রোকুজ্জো একটি বিলাসবহুল বাড়ি দেখেছেন।

লা প্যারিসিয়ানের খবর, রোকুজ্জোর পছন্দ হয়েছে বাংলো বাড়িটি। মেসি এখনো বাড়িটি দেখেননি। আজকালের মধ্যে তার বাড়িটি দেখতে আসার কথা। বাড়িটির মূল্য ৪১ মিলিয়ন পাউন্ড। ১৮৮৯ সালে নির্মান করা হয় বাড়িটি। বাড়িটিতে ৩০টি কক্ষ আছে। আছে সুইমিংপুল, হোম থিয়েটার, ব্যায়ামাগার এবং বিশাল গ্যারেজ।

এ ছাড়া গৃহকর্মীদেরও থাকার ব্যবস্থা আছে বাড়িটিতে। পিএসজির অনুশীলন কেন্দ্র থেকে ১৫ মিনিটের দূরত্ব বাড়িটির। ১৯৪০ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন ফ্রান্সের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট চার্লস ডি গাল্লু তিনদিন ছিলেন বাড়িটিতে। বাড়িটির বয়স ১২০ বছরের বেশি হলেও বর্তমানে পুরো বাড়িটি আধুনিকভাবে সজ্জিত।

ইতালিয়ান মার্বেলে সাজানো বাড়িটি দেখতে প্রায় রাজপ্রাসাদের মতোই। দুই মাস আগে বাড়িটি বিক্রির জন্য বিজ্ঞাপন দেন মালিক কর্তৃপক্ষ। এখন মেসির পছন্দ হলেই বাড়িটির মালিকানা বদল হতে পারে। প্যারিসে আপাতত একটি ভাড়া বাসায় আছেন মেসি, তার স্ত্রী এবং তাদের তিন সন্তান।

ইতোমধ্যে প্যারিসের একটি স্কুলে ভর্তি করানো হয়েছে মেসির বাচ্চাদের। ফরাসি প্রচারমাধ্যমগুলোর দাবি, নতুন ঠিকানায় বেশ সুখেই আছেন মেসি অ্যান্ড কোং। এখানে অন্তত দুই বছর থাকার কথা তাদের। পিএসজির সঙ্গে তার চুক্তি দুই বছরের। এক বছর বর্ধিত চুক্তির সুযোগ রাখা হয়েছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.