প্রবাসীদের সুখবর দিলেন সারোয়ার আলম

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে সবচেয়ে কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হয়েছেন প্রবাসীরা। তাদের অনেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আটকা পড়েছেন। দেশে আসতে চাইলেও আসতে পারছেন না স্বাস্থ্যবিধির কারণে। আবার বিদেশেও কাজ করতে পারছেন। অনেকে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। অনেকে চাকরি হারিয়ে মানবেতর জীবন ধারণ করছেন।

তাদের বিভিন্ন সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্য প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় একটি ‘কুইক রেসপন্স টিম’ গঠন করেছে। সেই টিমের অন্যতম সদস্য র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সাবেক সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার আলম।

তিনি বর্তমানে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সিনিয়র সহকারী সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।কুইক রেসপন্স টিমের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই হাজারও ফোন পেয়েছেন সিনিয়র সহকারী সচিব সারোয়ার আলম। সোমবার রাতে এ বিষয়ে নিজের ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন তিনি।

পোস্টে তিনি প্রবাসীদের কাছ থেকে ৩০ মে হাজারখানেক কল পাওয়ার কথা উল্লেখ করেন। তিনি প্রবাসীদের কিছু কমন প্রশ্নের উত্তরও দেন পোস্টে।প্রবাসীদের সৌদি আরব গমন নিয়ে জিজ্ঞাসার বিষয়ে সারোয়ার আলম বলেন, ৩০ জুনের মধ‍্যে সৌদি আরবে গেলে সবাইকে নির্দিষ্ট হোটেলে সাত দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। যদি কারও করোনার দুই ডোজ টিকা না দেওয়া থাকে বা টিকা দেওয়ার কার্ড না থাকে তাকেও থাকতে হবে কোয়ারেন্টিনে। এছাড়া সৌদি ফ্লাইটের ৭২ ঘণ্টা আগে হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে।

সরোয়ার আলমের ফেসবুক পোস্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো-‘গতকাল ৩০ মে সকাল ১০ টা থেকে ১১-৫০ ঘটিকা পযর্ন্ত (১ঘন্টা ৫০ মি) প্রবাসী কল‍্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ সভায় যুক্ত ছিলাম। এসময় কোন ফোন রিসিভ করতে পারি নাই। সভা শেষে দেখি মোবাইলে ১৬৮ টি মিসকল। এভাবেই দিনভর ফোন আসতে থাকে। সারাদিনে সব মিলিয়ে আনুমানিক হাজারেরও বেশী ফোন আসছে। তার মধ‍্যে শ দুয়েক ফোন রিসিভ করতে পেরেছি।

একটি নম্বরে কথা বললে পিছনে বেশ কয়েকজন অপেক্ষায় থাকে। আজো সারাদিন প্রায় একই অবস্থা। বিষয়টি মিথ‍্যাবাদীর গল্পের মতো মনে হয়। ঘটনার সূত্রপাত হলো গত পরশু প্রবাসীদের সমস্যা নিরসনকল্পে গঠিত কুইক রেসপন্স টিমের সদস‍্য হওয়াতে। এ অবস্থা টিমের অন‍্য সদস‍্যদের বেলায়ও। এ ফোনগুলোর প্রায় শতভাগই আমাদের শ্রদ্ধেয় রেমিট্যান্স যোদ্ধা প্রবাসী ভাইবোনদের। যাদের কঠোর পরিশ্রম আর ঝুকির বিনিময়ে শক্তিশালী আমাদের ফরেন রিজার্ভ। দাপ্তরিক ও অন‍্যান‍্য কাজের মাঝে এত ফোন কল রিসিভ করা খুবই অসুবিধা জনক। দিন শেষে দেখি মাথা ধরে গেছে। তাই যাদের ফোন রিসিভ করতে পারিনি তাদেরকে বিষয়টি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ রইলো।
যে কয়েকটি বিষয়ে প্রবাসী ভাই বোনেরা বেশী জানতে চেয়েছেন তার তথ‍্য নিম্নে দিচ্ছি:

১। ৩০ জুনের মধ‍্যে সৌদি আরবে গেলে নির্দিষ্ট হোটেলে আপনাকে সাতদিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে যদি আপনার করোনার দুই ডোজ টিকা না দেয়া থাকে বা টিকা দেওয়ার কার্ড না থাকে।
২। আপনার ফ্লাইটের ৭২ ঘন্টা আগে হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে।
৩। হোটেল বুকিং নিয়ে সৌদি প্রবাসীদের সমস‍্যাটা আগামী ২/৩ দিনের মধ‍্যে কেটে যাবে বলে আশা করছি। ( হোটেল বুকিং এর সময় সৌদি আরবস্থ হোটেলকে পুরো টাকা পরিশোধ করতে হয় বিধায় ও অন‍্যান‍্য কারণে সমস‍্যা হচ্ছে।)
৪। ইতিমধ্যে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে তাদের ভিসার মেয়াদ সৌদি সরকার বাড়াবে বলে আমরা আশা করছি। এ ব‍্যপারে বাংলাদেশ সরকার তৎপর রয়েছে।
৫। কোয়ারেন্টাইনের জন‍্য প্রবাসী কল‍্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় পচিঁশ হাজার টাকা প্রদান করবে। নিঃসন্দেহে এটি একটি মহৎ উদ‍্যোগ।
৬। অতিশীঘ্রই ওমান ও বাংলাদেশের ফ্লাইট চালু হবে বলে আমরা আশা করছি।

পরিশেষে বলতে চাই প্রবাসীদের কল‍্যাণে ও বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সরকার তৎপর রয়েছে।
ভালো থাকুক আমাদের রেমিট্যান্স যোদ্ধারা।’

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের গঠিত কুইক রেসপন্স টিমের আহ্বায়কের দায়িত্বে রয়েছেন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের পরিচালক আরিফ আহমেদ খান। সরোয়ার আলম ছাড়া কুইক রেসপন্স টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- বিএমইটির ঊর্ধ্বতন পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. মাসুদ রানা, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের উপ-পরিচালক মো. জাহিদ আনোয়ার, সহকারী পরিচালক মো. আজিজুল ইসলাম ভুঞা, উপ-সহকারী পরিচালক মো. আবদুল কাদের ও অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.