বাংলাদেশকে হারিয়ে ভারতকে পেছনে ফেলল পাকিস্তান

‘প্রতিশোধ’ তো প্রতিশোধ’-ই। এক্ষেত্রে বছর, ভেন্যু, সংস্করণ- কিছুই বিবেচ্য হয় না। যে মিরপুরে ২০১৫ তে পাকিস্তানকে ওয়ানডেতে ‘বাংলাওয়াশ’ করেছিল মাশরাফি মর্তুজার বাংলাদেশ, ৬ বছর পর সেই মিরপুরেই পাশার দান উল্টে দিলেন বাবর আজমরা।

একই সঙ্গে তিন বা ততোধিক ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্রতিপক্ষকে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৭ বার ধবলধোলাইয়ের রেকর্ড করেছে পাকিস্তান। এই রেকর্ডে পাকিস্তান ছাড়িয়ে গেছে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে।পাকিস্তানের ৭ ধবলধোলাইয়ের প্রথম শিকার হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

২০১৬ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল পাকিস্তান। সবচেয়ে বেশি তিনবার ২০১৮ সালে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করে পাকিস্তানিরা। আর সবশেষ আজ ২২ নভেম্বর বাংলাদেশকে তাদের মাঠেই ধবলধোলাইয়ের ‘লজ্জা’ দিয়ে এই রেকর্ডের শীর্ষে উঠলো পাকিস্তান।

অপরদিকে, ভারতের প্রতিপক্ষকে ৬ বার হোয়াইটওয়াশের ঘটনা ঘটে টানা ৬ বছর- ২০১৬ থেকে ২০২১। যেখানে প্রথম ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়াকে তাদের মাঠে হোয়াইটওয়াশ করেছিল ভারত। আর সর্বশেষ ২১ নভেম্বর তাদের (অস্ট্রেলিয়া) প্রতিবেশি নিউজিল্যান্ডকে ধবলধোলাইয়ের ‘লজ্জা’ উপহার দেয় ভারতীয়রা।

তাছাড়া সর্বোচ্চ দুবার করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করে তারা।=

=

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.