বাংলাদেশের ২ ক্রিকেটারকে আমি অনুসরণ করি : ডি ভিলিয়ার্স

ভারতে ২০২৩ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে। অক্টোবর-নভেম্বরে হবে বিশ্বকাপ। এ বিশ্বকাপের শিরোপা বাংলাদেশ জিততে পারে বলে মনে করছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স। তিনি বলেন, ‘প্রতিবারই তাদের সুযোগ বাড়ছে। তারা অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে।

তাদের অনেক প্রতিভাবান ক্রিকেটার বেরিয়ে আসছে। তাদের সুযোগ দিন দিন বাড়ছে। পরের বার (২০২৩ বিশ্বকাপ) তারা ট্রফিও জিততে পারে।’ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল দিন দিন উন্নতি করছে। অভিজ্ঞতা বাড়ছে। ওয়ানডে ক্রিকেটে অসাধারণ দল হয়ে উঠেছে। এমন কোন দল নেই যে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের কাছে হারেনি।

সব দলকেই হারানোর অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের আছে। ২০১৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ থেকেই এই উত্থানের দেখা মিলেছে। ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। প্রথমবারের মতো সেমিফাইনালে খেলার আশা পূরণ হয়নি। তবে ছাপ ঠিকই রেখেছে।

প্রথম ম্যাচেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে দিয়ে নিজেদের যোগ্যতা জানান দিয়েছে। শেষ পর্যন্ত সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখা যায়নি। তবে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপ যেহেতু উপমহাদেশেই হবে, তাই বাংলাদেশকে নিয়েও বড় আশা দেখা হচ্ছে। বাংলাদেশ বিশ্বকাপও জিততে পারে সেই সম্ভাবনাও দেখছেন ভিলিয়ার্স।

সর্বশেষ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে (বিপিএল টি২০) খেলেছেন ভিলিয়ার্স। রংপুর রাইডার্সের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন। বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার দলে খেলেছেন। তখন দেশের ক্রিকেট সম্পর্কে অনেক বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশ যে দিন দিন সফল হচ্ছে তাও ভালভাবে বুঝতে পেরেছেন।

মাশরাফির নেতৃত্বগুণের প্রশংসাও করেছেন ভিলিয়ার্স। বলেছেন, ‘মাশরাফির অধীনে খেলতে আসলেই অনেক উপভোগ করেছি আমি। আমরা অনেক মজা করেছি। অধিনায়ক হিসেবে আপনি পুরো দলের কথা চিন্তা করবেন, নিজের কথা না ভেবে। তার প্রতি আমার অনেক শ্রদ্ধা রয়েছে।’

মাশরাফি, সাকিবদের যে অনুসরণ করেন তাও বলেছেন ভিলিয়ার্স। এক লাইভ আড্ডায় তিনি জানিয়েছেন, ‘আমি রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলেছি। আমি মনে করি মাশরাফির সঙ্গে আমার খুব ভাল সম্পর্ক। আমরা ভাল বন্ধুও। মাশরাফি এবং সাকিব দুজনই বাংলাদেশের হয়ে লম্বা সময় ধরে খেলছে। আমি তাদের দুজনকেই অনুসরণ করি। দুজনই আমার ভাল বন্ধু।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*