বাতিল হওয়া টেস্ট নিয়ে মুখ খুললেন সৌরভ

ম্যানচেস্টার টেস্ট বাতিল হওয়া নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। তবে এরইমধ্যে কথা উঠেছে আইপিএল খেলতেই নাকি ইংলিশদের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলা থেকে বিরত থেকেছে ভারতীয় ক্রিকেটাররা! তবে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। টেস্ট বাতিলের কারণ হিসেবে তিনি দলের ফিজিওর করোনা আক্রান্ত হওয়াকেই সামনে এনেছেন।

সৌরভ গাঙ্গুলি একদিকে বলছেন, পরবর্তী সময়ে টেস্ট ম্যাচটি আয়োজন করলে তারা খেলবেন। অন্যদিকে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডকে প্রস্তাব পাঠানো হয়, টেস্টের পরিবর্তে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার জন্য।

তবে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কথা বদলে ফেললেন বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি। টেলিগ্রাফকে দেওয়া সাক্ষাতকারে, ম্যানচেস্টার টেস্ট বাতিল হয়ে গেছে দাবি করার কয়েক ঘণ্টা পরই, আবারও সে টেস্টের ভবিষ্যৎ নিয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করলেন সংবাদমাধ্যম পিটিআই‌’র কাছে।

ম্যানচেস্টার টেস্ট নিয়ে আলোচনা যেন থামছেই না। একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করেই যাচ্ছে দু‌’দেশের গণমাধ্যম থেকে শুরু করে ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা। প্রথমে কোভিডের কারণ দেখানো হলেও, নানা মহলে গুঞ্জন মূলত আইপিএলের কারণেই টেস্ট ম্যাচটি খেলতে রাজি হয়নি ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

গুঞ্জন আরও ডালপালা মেলে ইংলিশ ক্রিকেটারদের বক্তব্যে। বিষয়টিকে লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেন জেমস অ্যান্ডারসন। ভারতীয় ক্রিকেটারদের আচরণে ক্ষুব্ধ হয়ে আইপিএল থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন বেশ কয়েকজন ইংলিশ ক্রিকেটার। এমনকি আইসিসির ডিসপিউট কমিটির কাছে আর্থিক ক্ষতির এক বিশাল ফিরিস্তি তুলে ধরে ম্যাচের পয়েন্ট দাবি করেছে ইসিবি।

এ অবস্থায় আর চুপ থাকতে পারেননি বিসিসিআই বস। স্বাভাবিক অবস্থাতেই আইপিএল নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য এলে ফুঁসে উঠে ভারতীয়রা। আর এবার তো ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের অহমে আঘাত এসেছে। তাই মুখ খুলতেই হলো সৌরভ গাঙ্গুলিকে। কিন্তু সেখানেও লেজে গোবরে করে ফেলেছেন প্রিন্স অব ক্যালকাটা।

কলকাতার টেলিগ্রাফকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, স্থগিত নয় বাতিল হয়ে গেছে ওল্ড ট্রাফোর্ডের টেস্টটি। এমনকি আগামী বছরের কোন এক সময় এক টেস্ট ম্যাচ আয়োজন করে ইসিবিকে ক্ষতিপূরণও দিতে চেয়েছেন তিনি। যদিও সে ম্যাচটাকে এ সিরিজের ম্যাচ হিসেবে কোনভাবেই ধরতে রাজি ছিলেন না সৌরভ।

তবে প্রায় ৫০০ কোটি টাকার ক্ষতি হওয়ায় চরম চটেছে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। আপাতত তাই বন্ধুত্ব দূরে সরিয়ে আর্থিক দেনা-পাওনা মেটাতে সরগরম তারা। যে কারণে ম্যাচটিতে ভারতকে হারিয়ে, ইংল্যান্ডকে জয়ী ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছে ইসিবি।

এ অবস্থায় ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে, টেলিগ্রাফে দেওয়া বক্তব্য থেকে সরে আসলেন সাবেক এ অধিনায়ক। জানালেন, ম্যাচটি যখনই আয়োজিত হবে, এটা অবশ্যই এ সিরিজের ম্যাচ বলেই পরিগণিত হতে হবে। টেস্ট ম্যাচ নিয়ে কোন আপোষেও রাজি নন বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে দিন ভর যখন একেকবার একেক বক্তব্য দিয়ে আলোচিত সমালোচিত সৌরভ, তখন ইসিবির সঙ্গে মনোমালিন্য দূর করার দায়িত্ব নিয়েছেন বিসিসিআই এর সম্পাদক জয় শাহ। আগামী বছরের জুলাই এ তিন ম্যাচের পরিবর্তে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি। আশা করেছেন, অতিরিক্ত ম্যাচ দুটো থেকে আর্থিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পারবে থ্রি লায়নরা।যদিও সব কিছুই এখন নির্ভর করছে ব্রডকাস্টারদের সিদ্ধান্তের ওপর।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.