বিশ্বকাপে রশিদ-নবীদের দেখতে চান না অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক

আফগানিস্তানকে আগামী বিশ্বকাপে দেখতে চান না অস্ট্রেলিয়া দলের টেস্ট অধিনায়ক টিম পেইন। তার মতে, যেই দেশের সরকার মেয়েদের ক্রিকেট খেলার অধিকার কেড়ে নেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত নিতে পারে, তাদের পুরুষ দলেরও খেলার অধিকার নেই।

অস্ট্রেলিয়ার এসইনএন রেডিওতে এক সাক্ষাৎকারে পেইন আফগানিস্তানের তালেবান সরকার নিয়ে তীর্যক মন্তব্য ছুড়েছেন পেইন। এ ক্ষেত্রে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির ভূমিকার সমালোচনা করেন পেইন। পেইন বলেছেন— ‘আমার মনে হয় না, আমরা এমন দেশের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে চাই, যারা আক্ষরিক অর্থেই তাদের জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকের সুযোগ ও অধিকার কেড়ে নেয়। এটি দুঃখজনক।’

আইসিসির তীব্র সমালোচনায় পেইন বলেন, ‘আফগানিস্তানের নারীদের ক্রিকেট থামিয়ে দেওয়ার কথা জানার পরও আইসিসির কাছ থেকে এখনও কিছু শুনিনি আমরা। আশ্চর্যের ব্যাপার যে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হতে মাত্র এক মাসের কিছু বেশি সময় বাকি। এ ধরনের একটি দল কীভাবে আইসিসি অনুমোদিত টুর্নামেন্টে খেলতে পারে, এটা দেখাটা খুব, খুব কঠিন হতে যাচ্ছে।’

আফগানিস্তানকে বয়কটের ইঙ্গিত দিয়ে অসি অধিনায়ক বলেন, ‘আমি ধারণা করতে পারি, বিশ্বের অন্যান্য দল যদি আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলতে না চায় এবং বিভিন্ন দেশের সরকার তাদের ভ্রমণ করতে না দেয়, তা হলে তাদের পক্ষে বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া অসম্ভব।’

উল্লেখ্য, আফগান মেয়েদের ক্রিকেট খেলতে দেবে না তালেবান— এমন ঘোষণা দিয়েছেন তালেবানের সংস্কৃতিবিষয়ক কমিশনের উপপ্রধান আহমাদুল্লাহ ওয়াসিক।যদিও তালেবানের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে এখনও কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসেনি। তবে তালেবান মুখপাত্রের এমন বক্তব্যের পরই আফগান সরকারকে হুমকি দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ঘোষণা দিয়েছে— যদি আফগান নারীদের ক্রিকেট খেলা বন্ধ হয়ে যায়, তা হলে আফগান পুরুষ দলের বিপক্ষে তারা এ বছরের পূর্বনির্ধারিত টেস্ট ম্যাচটি খেলবে না। এবার রশিদ-নবীদের আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দেখতে চান না বলে জানালেন অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের অধিনায়ক টিম পেইন।

Sharing is caring!