বিয়ে করছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পর্তুগিজ ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। কনে আর কেউ নন, তার দীর্ঘদিনের বান্ধবী মডেলকন্যা জর্জিনা রদ্রিগেজ। ইতোমধ্যেই জর্জিনাকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি বাগদান আংটিটি উপহার দিয়েছেন সিআর সেভেন। তবে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক না হলেও, এখন থেকেই ফুটবল বা শো-বিজ দুনিয়ায় সাজ সাজ রব। এই বিয়ে নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই রোনালদো ভক্তদের।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ফুটবল দুনিয়ার এক জীবন্ত কিংবদন্তীর নাম। সর্বদা থাকেন ভক্তদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে। আর এবার সেই রোনালদো বসতে যাচ্ছেন বিয়ের পিঁড়িতে। কনে তার দীর্ঘদিনের বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজ। তবে দিনক্ষণ ঠিক না হওয়ায় ভক্তদের এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরো কিছুদিন।

২০১৬ সাল। রোনালদো তখন রিয়াল মাদ্রিদের তারকা। ঠিক সেই সময় একদিন মাদ্রিদ শহরের গুচির এক শো-রোমে রোনালদোর সাথে দেখা জর্জিনা রদ্রিগেজের। তিনি তখন ছিলেন সেই শো-রুমের সাধারণ একজন কর্মী। আর সেই প্রথম সাক্ষাতেই দুজনের মন দেয়া-নেয়ার পালা শেষ হয়। রূপকথার সেই কাহিনী যে সেখান থেকেই শুরু। তারপরের গল্পটা অবশ্য সবার কম বেশি জানা আছে।

২০১৬ থেকে ২০২০। চার বছর ধরে একই ছাদের নিচে থাকছেন রোনালদো-রদ্রিগেজ। তখন থেকেই সাজানো শুরু করেছেন নিজেদের সংসার। আস্থা হওয়ার চেষ্টা করেছেন সিআর সেভেনের। আর প্রতিটা ম্যাচেই থেকেছেন গ্যালারিতে। উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিয়েছেন রোনালদোকে। সেই রদ্রিগেজকেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা।

রোনালদোর জীবনে প্রেম এর আগেও অনেকবার এসেছে। যার কোনটাই বেশিদিন টিকেনি। তবে রাশিয়ান মডেল ইরিনা শায়কের সাথে পাঁচ বছরের সম্পর্ক ছিলো রোনালদোর। কিন্তু সেই সম্পর্কটাও ভেঙ্গে যায়। এছাড়া, ২০০৭ সালে রোনালদোর ছেলে রোনালদো জুনিয়রের জন্ম হয়।

যার মায়ের নাম আজও প্রকাশ করেনি সিআর সেভেন। ২০১৭ সালে স্যারোগেসির মাধ্যমে জমজ কন্যা সন্তানের বাবা হন রোনালদো। আর ২০১৭ সালে রোনালদো-রদ্রিগেজের ঘর আরো করে জন্ম নেয় অ্যালেনা মার্টিনা নামে এক কন্যা সন্তান।

২০১৮ সালেই স্প্যানিশ মডেল রদ্রিগেজকে বিয়ের প্রস্তাব দেন রোনালদো। আর এবার বিশ্বের সবচেয়ে দামি বাগদান আংটিটি রদ্রিগেজের অনামিকায় পরিয়ে দিয়ে বিয়ের আগাম বার্তাই ভক্তদের জানিয়ে দিলেন সিআর সেভেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *