ব্যর্থ নাইম, ওপেনিংয়ে যাকে চাইলেন আশরাফুল

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ জেতার পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেও সহজ জয় পেয়েছে বাংলাদেশ দল। সবমিলিয়ে শেষ ছয় ম্যাচের পাঁচটিতেই জিতেছে টাইগাররা। কিন্তু এসব ম্যাচ জিতলেও উদ্বোধনী জুটি নিয়ে চিন্তা কাটছে না বাংলাদেশের।

নাইম শেখ ও সৌম্য সরকারকে দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওপেনিং করানো হয়েছিল। তারা ব্যর্থ হন প্রথম চার ম্যাচে। ফলে শেষ ম্যাচে মিডল অর্ডার থেকে তুলে আনা হয় শেখ মেহেদি হাসানকে। এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে সুযোগ পাননি সৌম্য, এসেছেন লিটন দাস।

কিন্তু বদলায়নি বাংলাদেশ দলের ওপেনিংয়ের দুর্দশা। মাত্র ৬১ রানের সহজ লক্ষ্যে খেলতে নেমেও হতাশ করেছেন নাইম ও লিটন। দুজনই আউট হয়েছেন মাত্র ১ রান করে। তাই এখন সিরিজের বাকি ম্যাচগুলোতে নাইমের বদলে আরেক তরুণ বাঁহাতি আফিফ হোসেন ধ্রুবকে ওপেনিংয়ে দেখতে চান বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল।

নিজের ইউটিউব চ্যানেল অ্যাশ স্কুপে দেয়া এক ভিডিওবার্তায় আফিফকে ওপেনিংয়ে দেখতে চেয়ে নিজের যুক্তি ও বিশ্লেষণ তুলে ধরেছেন আশরাফুল। তার মতে, নাইম যেহেতু অফস্পিনের বিপক্ষে বেশ দুর্বল তাই তাকে প্রয়োজনে মিডল অর্ডারে দেখে নেয়া যেতে পারে। নিচে আশরাফুলের ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ তুলে ধরা হলোঃ

‘এই সিরিজের বাকি ম্যাচগুলো ওপেনারদের জন্য ফর্মটা ফিরিয়ে আনার ভালো একটা সুযোগ। আমি ব্যক্তিগতভাবে খেলার অভিজ্ঞতা থেকে, খেলা দেখার অভিজ্ঞতা থেকে আমার মনে হচ্ছে, টিম ম্যানেজম্যান্ট যদি আফিফকে নিয়ে চিন্তা করে… নাইম শেখ ভালো খেলছেন, ত্রিশ রান করে করছেন।

কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে দেখেছি, এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর হয়ে শুরুর দিকে ওপেনিংয়ে খেলেছেন। তারপর বেশ কিছু ম্যাচে তাকে মিডলঅর্ডারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কারণ শুরুর দিকে অফস্পিনার এলে সে খুব একটা স্বচ্ছন্দ্য হতো না।’ ‘প্রথম ম্যাচেও আমরা দেখলাম যে, নাইম কিন্তু অফস্পিনারের বলেই আউট হয়েছেন।

নিউজিল্যান্ড যেভাবে দল সাজিয়েছে, তারা পরের ম্যাচগুলোতেও তিনটা স্পিনারই খেলাবে। বোলিংয়ের শুরুতে অফস্পিনার ও বাঁহাতি স্পিনার দিয়েই করানো হবে। এই জায়গাটায় আমার চিন্তা হচ্ছে যে, আমরা আফিফকে নিয়ে যদি ওপেনিং স্লটে চিন্তা করি তাহলে এটা খুব ভালো একটা অপশন হবে।’

‘আফিফ খুব চমৎকার ফর্মে আছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ ব্যাটিং করেছেন।, বাকি চার ম্যাচে তাকে যদি আমরা ওপেনিং স্লটে নিয়ে আসতে পারি… নাইম শেখের আমরা এরই মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ ও এখানে একটা ম্যাচ দেখলাম। অফস্পিনের বিপক্ষে কিন্তু তিনি অতটা কমফর্টেবল না।

সেই কারণে আমার মনে হয় যে, আফিফকে নিয়ে যদি আমরা চিন্তা করতে পারি এখন থেকেই তাহলে ভালো হবে।’ ‘যেহেতু বিশ্বকাপের আগে চারটা ম্যাচ আছে। এখন থেকেই যদি আফিফকে আমরা ওপেনিংয়ে খেলাতে পারি, তাহলে এটা আমার মনে হয় ভালো হবে। আফিফ আগেও ওপেনিং করেছেন বিপিএল বা বঙ্গবন্ধু কাপের মতো টুর্নামেন্টে।

তো যেহেতু সে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে চমৎকার ফর্মে ছিল, ওপেনিংয়ের জায়গাটায় ম্যানেজম্যান্ট যদি এখন থেকেই তাকে নিয়ে ভাবতে শুরু করে…। এক্ষেত্রে প্রো-অ্যাক্টিভ হতে হবে। দলে নাইম, লিটন, সৌম্য থাকায় যে আরেকটা ওপেনার খেলাতে পারব না, এরকম না ভেবে আমার মনে হয় দলের জন্য যেটা ভালো হবে সেটাই করা উচিত।’

‘আফিফ এখন ছয় বা সাত নম্বরে যেখানে খেলছেন, এর চেয়ে যদি টপঅর্ডারে তাকে চিন্তা করি তাহলে দলের আরও ভালো হবে বলে আমি মনে করি। সেই কারণে আমার মনে হচ্ছে, আমি ব্যক্তিগতভাবে খেলার অভিজ্ঞতা থেকে, খেলা দেখার অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, দ্বিতীয় ম্যাচ বা যে কয়টা ম্যাচ বাকি আছে, আফিফকে আমরা ওপেনিংয়ে চিন্তা করতে পারি।’

Sharing is caring!