ভয়ে এই চেয়ারে বসে না কেউ

দিনাজপুরের হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে ১৩তম দিনের মতো অব্যাহত রয়েছে চিকিৎসা নিতে গিয়ে ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফেরা। সম্প্রতি ভারতফেরত তিনজনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় তাদের ব্যবহৃত চেয়ারে ভয়ে বসছে না কেউ।

করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকে চেয়ারটি বাংলাহিলি ডাকবাংলো চত্বরের এক পাশে ফেলে রাখা হয়েছে। সোমবার (২১ মে) ডাকবাংলো চত্বরে চেয়ারটি পড়ে থাকতে দেখা যায়।ডাকবাংলো চত্বরে অবস্থিত বুথ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ মে ভারত থেকে হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীরা দেশে ফিরছেন।

ভারত থেকে দেশে প্রবেশের পর তাদের তথ্য সংগ্রহ ও করোনা পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত দুটি বুথ রয়েছে। এসব কার্যক্রম সম্পন্ন করতে কিছু সময় লাগে। এ সময়ে প্রত্যেক যাত্রীকে বাংলাহিলি ডাকবাংলো চত্বরে বসে থাকতে হয়।

সম্প্রতি ভারত থেকে আসা তিনজনের করোনা শনাক্ত হলে বাংলাহিলি ডাকবাংলোতে তাদের বসার জন্য রাখা চেয়ারগুলোর মধ্যে যে চেয়ারে একজন বসেছিলেন; তার করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকে সেই চেয়ারে আর কেউ বসছে না। বর্তমানে চেয়ারটি ডাকবাংলোর এক পাশে পড়ে আছে।

বাংলাহিলি ডাকবাংলোর কেয়ারটেকার আব্দুল আলিম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ওই চেয়ারে বসা ব্যক্তির করোনা শনাক্তের পর থেকে কেউ বসছে না। এমনকি চেয়ারটি কেউ ভয়ে সরিয়ে রাখছে না। গত কয়েকদিন ধরে চেয়ারটি ওই অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.