মনে হচ্ছে হারিয়ে যাওয়া সন্তানকে ফিরে পেয়েছি

দীর্ঘ দেড় বছর পরে আজ (রোববার) থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ১৮ মাস বন্ধ থাকার পর প্রিয় আঙ্গিনায় শিক্ষার্থীদের পদচারণায় প্রাণ ফিরেছে শিক্ষাঙ্গনে।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রথম দিনে মনের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বর্ণমালা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষক মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, ‘মনে হয়েছে হারিয়ে যাওয়া সন্তানকে ফিরে পেয়েছি।’

তিনি বলেন, দীর্ঘ দিন পরে প্রতিষ্ঠানে একটি উৎসব মুখর পরিবেশ পেয়েছি। স্কুল যেন আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে। অনলাইনে ক্লাস নিলেও শিক্ষার্থীদের আমরা কাছে পাইনি, দীর্ঘ দিন পরে শিক্ষার্থীদের পেয়ে আমরা আবেগে আপ্লূত। এসময় দেখা যায়, দীর্ঘ দিন পর স্কুল খোলায় শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেয়া হচ্ছে।

গেটের সামনেই দাঁড়িয়ে রয়েছেন শিক্ষকরা। এছাড়া স্বাস্থ্য বিধি মানতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সরেজমিনে দেখা যায়, শিক্ষার্থীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপা হচ্ছে যাদের শরীরে তাপমাত্রা অতিরিক্ত রয়েছে তাদেরকে বাসায় ফিরত পাঠানো হচ্ছে।

যেসকল শিক্ষার্থীদের মাস্ক নেই তাদের জন্য মাস্কের ব্যবস্থা করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের অবিভাবকরা জানান, দীর্ঘ দিন পর হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় তাদের কাছে আনন্দ লাগছে। ছেলে মেয়েদের শিক্ষাঙ্গনে নিয়ে আসাতে তারা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন।

অনলাইনে ক্লাস হলেও তাদের ছেলে মেয়েরা শিক্ষায় মনোযোগী ছিলেন না। এখন স্কুল কলেজ খোলায় তাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় বড় ধরনের সংকট দেখা দিয়েছে।

চলতি বছরের শুরুতে এসএসসি ও এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষা আয়োজনের কথা থাকলেও এখনো তা সম্ভব হয়নি। এছাড়া অন্যান্য পাবলিক পরীক্ষারও অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এসব বিষয় বিবেচনা করে আজ থেকে শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

Sharing is caring!