ম্যাজিস্ট্রেটকে মা’রধর করলেন শ্রমিকরা!

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় পরিবহন শ্রমিকদের হা’ম’লায় আ’হ’ত হয়েছেন ম্যাজিস্ট্রেট।মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুই পরিবহন শ্রমিককে ৭ দিনের কা’রাদ’ণ্ড অনাদায়ে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

দণ্ড’প্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন, ঘাটাইল উপজেলার আনেহলা ইউনিয়নের যুগিহাটী গ্রামের মৃ’ত মজিদ মণ্ডলের ছেলে হারুনুর রশিদ (৪০) ও উপজেলা কাগমারীপাড়ার ইকেন আলীর ছেলে মানিক। জানা গেছে, মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড ও উপজেলা প্রশাসন কার্যালয়ের গেটের সামনে এ’লোপা’তাড়ি’ভাবে পার্কিং করে দখল করার বিষয়টি উপজেলা আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে উঠানো হয়।

এ সময় উপস্থিত অনেকেই পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এদিকে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পুলিশ সদস্যদের নিয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে গেলে শ্রমিকরা ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হা’ম’লা করে। এ সময় ম্যাজিস্ট্রেটের না’ক ফে’টে র’ক্ত বের হয়। পরে স্থানীয়রা উ’দ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়।

এর আগে ওই ম্যাজিস্ট্রেট দুই পরিবহন শ্রমিককে জরিমানা অনাদায়ে কা’রাদ’ণ্ড প্রদান করলে শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে তার ওপর হা’ম’লা চা’লায়। এ ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও শ্রমিক পরিবহন নেতাদের সঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কক্ষে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সকল পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করা হয়। পরে শ্রমিক নেতারা ইউএনও ও ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ক্ষমা চেয়ে মুক্তি পান।

ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল ওহাব মিয়া জানান, আজ মঙ্গলবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় ২ জন শ্রমিককে জেল-জরিমানা করলে পুলিশ সদস্যরা তাদের নিয়ে পুলিশ ভ্যানে বসে। এ সময় উত্তেজিত শ্রমিকরা ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হা’ম’লা চালায়। পরে ইউএনও কক্ষে শ্রমিক নেতারাসহ সবাই বসে বিষয়টি সমাধান করে। এ সময় পরিবহন শ্রমিকরা ক্ষমা চাওয়ায় দুই শ্রমিককে জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হয়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.