যার নেতৃত্বে তালেবানের দখলমুক্ত হলো তিন জেলা

সমগ্র আফ’গানি’স্তান জুড়েই চলছে তা’লেবা’নের দখল’দারিত্ব। এরই মধ্যে বাঘলান প্রদেশের অন্তত তিনটি জেলা তা’লেবা’নের দখলমুক্ত করা হয়েছে বলে আফগান গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। আর তা’লেবা’নের দখলদারিত্ব থেকে ওই তিনটি জেলা মুক্ত করার নেতৃত্ব দিয়েছেন তালে’বান বিরোধী নেতা আবদুল হামিদ দাদগর।

আবদুল হামিদ দাদগরের নেতৃত্বে ওই তিনটি জেলা দখলমুক্ত করা হয়েছে শনিবার গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। জেলা তিনটি দখলমুক্ত করার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ কয়েকটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। এক ভিডিওতে নর্দান অ্যালায়েন্সের সদস্য আবদুল হামিদ দাদগরকে ফোনে কথা বলতে দেখা গেছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তা’লেবা’ন বিরোধী যো’দ্ধারা পাল-হেসার, বানু আর আনদ্রাবি জেলাগুলো শুক্রবার দখলমুক্ত করে। জে’লাগুলো দখলমুক্ত করার পর তারা তা’লেবা’নের পতাকা নামিয়ে আফগানিস্তানের ত্রিরঙা পতাকা উড়িয়ে দেয়। এদিকে, সমগ্র আফগানিস্তানের দখল নিয়ে নিলেও এখনো পঞ্জশির উপত্যকায় পৌঁছাতে পারেনি তা’লেবান।

এই মুহূর্তে সেখানেই রয়েছেন আফগানিস্তানের কেয়ারটেকার প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ। সেখান থেকেই তা’লেবা’ন বিরোধী লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। আফ’গানি’স্তানের তালে’বান বি’রোধী নেতা হিসেবে পরিচিত আহমেদ শাহ মাওসদের ছেলে আহমেদ মাওসদও পঞ্জশির উপত্যকায় তা’লেবা’নদের মোকাবিলায় বাহিনী তৈরির চেষ্টা করছেন বলে জানা গেছে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.