যু’দ্ধের দামামা: ভারত সীমান্তে বোমারু বিমান মোতায়েন করেছে চীন!

ভারতের লাদাখ সীমান্তে চীনের বেশ কয়েকটি বোমারু বিমান দেখা গেছে। সামরিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ বিষয়ক সাময়িকী মি’লিটারি ওয়াচ জানিয়েছে, চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) সেন্ট্রাল থিয়েটার কমান্ড থেকে প্রকাশিত নতুন ছবিতে ভারতের লাদাখ সংলগ্ন বিতর্কিত সীমান্ত প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার (এলএসি) পাশে এইচ-৬ বোমারু বিমান মোতায়েন করেছে চীনা সামরিক বাহিনী।

মিলিটারি ওয়াচ বলছে, দেশজুড়ে ২৭০টির বেশি এইচ-৬ বোমারু বিমান মোতায়েন করে রেখেছে চীন। এর মধ্যে বেশিরভাগ পূর্ব উপকূলে আছে সবচেয়ে বেশি; যেখানে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বোমারু বিমান ঘাঁটি। সেখানে মোতায়েন চীনের অনেক বোমারু বিমান যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার বহরে থাকা বিমানের চেয়েও উন্নতমানের।

মিলিটারি ওয়াচ ম্যাগাজিনের ওই প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, আকাশে যু’দ্ধযানের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী হিসেবে বিবেচিত একটি হলো এইচ-৬। পার’মাণবি’ক অ’স্ত্র বহনে সক্ষম এইচ-৬ থেকে ক্রুজ মি’সাই’ল ছো’ড়া যায়। লাদাখ সীমান্তে যে কেনো উত্তেজনা শুরু হলে তাৎক্ষণিকভাবে তা প্রতিহত করতেই চীনের এমন অবস্থান।

কয়েকদিন ধরেই লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে চীনের পঞ্চম প্রজন্মের জে-২০ চেংড়ু যু’দ্ধবিমান উড়তে দেখা যায়। বিশেষত, প্যাঙ্গং হ্রদের দক্ষিণে নতুন করে সামরিক উত্তেজনা শুরুর আগে এই যু’দ্ধবিমান উড়তে দেখা যায়। তবে সাম্প্রতিক কূটনৈতিক সমঝোতায় সামরিক উপস্থিতি হ্রাসের কথা বলা হলেও তা হয়নি।

প্রস্তুতি রয়েছে ভারতেরও। চীনা কমব্যাট এয়ারক্রাফ্টের মোকাবিলায় ভারত তার আধুনিক প্রজন্মের মিরাজ, সুখোই, মিগ-২৯ মোতায়েন করেছিল আগেই। ভূমি থেকে আকাশে উৎক্ষেপণযোগ্য ক্ষে’পণা’স্ত্র ব্যবস্থায় মোতায়েন করেছে ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *