যুব মহিলা লীগ থেকে তুহিনকে অব্যাহতি

ঢাকা উত্তরের সভাপতি সাবিনা আক্তার তুহিনকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে যুব মহিলা লীগ। কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ থেকে করা শোকজের জবাব না দেওয়ায় এই সিদ্ধান্ত আসে তুহিনের জন্য। গত রবিবার (২ জানুয়ারি) সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নাজমা আক্তার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাকে এই অব্যাহতি দেওয়া হয়।

অব্যাহতির চিঠিতে বলা হয়েছে, গত ২১ ডিসেম্বর কার্যনির্বাহী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক সাংগঠনিক অদক্ষতা, সংগঠনের নিয়ম-শৃঙ্খলা পরিপন্থী কর্মকা’ণ্ডে নিয়োজিত এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সভাপতিসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের মা’নহা’নিকর বক্তব্য দেওয়ার কারণে সাত কার্যদিবসের মধ্যে লিখিতভাবে জবাব দেওয়ার জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়েছিল। ওই চিঠি কুরিয়ার সার্ভিস, হোয়াটসঅ্যাপ ও ম্যাসেজের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছিল।

৭ কার্যদিবস অতিবাহিত হওয়ার পরও কোনো উত্তর না পাওয়ায় গঠনতন্ত্রের ১১(খ) ও ১২(খ) ধারায় ঢাকা মহানগর উত্তর যুব মহিলা লীগের সভাপতির পদ থেকে তাকে অব্যাহতি প্রদান করা হলো। শোকজের চিঠিতে বলা হয়, গত ১৬ ডিসেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় অসাংগঠনিক কর্মকাণ্ড করেন তুহিন।

সেখানে তিনি সভাপতি নাজমা আক্তারসহ অনেককে অপমান, নাজেহাল এমনকি শারীরিকভাবে আহত ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগসহ চারটি অভিযোগ করা হয়। সেই অভিযোগের জবাব চাওয়া হয় তুহিনের পক্ষ থেকে। তবে সেই শোকজের জবাব দেননি তুহিন।

অব্যাহতি প্রসঙ্গে সাবিনা আক্তার তুহিন গণমাধ্যমকে বলেন, আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শোকজের চিঠি দেখেছি। শুধুমাত্র সভাপতির স্বাক্ষরিত চিঠি হওয়ায় উত্তর দেইনি। আর ব্যক্তিগত কারণে সভাপতি আমাকেই এখন অব্যাহতি দিয়েছেন। আমি এই অব্যাহতি মানি না। আমি আমার সাংগঠনিক কার্যক্রম করব। তুহিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। তিনি যখন বলবেন তখনই আমি সাংগঠনিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকব, তার আগে নয়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.