লঙ্কা সফর বাতিল হলে বিসিবির যে পরিকল্পনা

করোনা প্রভাব দূরে সরিয়ে দেশে দেশে ফিরছে ক্রিকেট। জুলাই থেকে ইংল্যান্ডে ফিরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, ইতোমধ্যে আতিথেয়তা দিয়েছে চারটি দেশের ক্রিকেট দলকে। অন্যান্য দেশগুলোও মাঠে ক্রিকেট ফেরাতে সচেষ্ট, তবে শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে মাঠে ফেরার অপেক্ষায় থাকা বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা আছেন শঙ্কায়।

লঙ্কান বোর্ডের বেধে দেওয়া কঠিন শর্ত সহ নীতিমালা অনুসরণ করে সফরে যেতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে বিসিবি। নিজেদের দাবি দাওয়া সহ পুনরায় প্রস্তাব পাঠানো হয়েছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বরাবর। এখন লঙ্কান বোর্ড নমনীয় না হলে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজটি আবারও স্থগিত হতে যাচ্ছে নিশ্চিত।

মার্চে মাত্র এক রাউন্ড মাঠে গড়ানোর পর স্থগিত হয় ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল)। কোন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ওটাই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সর্বশেষ মাঠে নামা। লম্বা বিরতির পর দেশের ক্রিকেট ফেরার কথা ছিল শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে, ঘরোয়া ক্রিকেটের ক্ষেত্রে আরও সময় নিতে চেয়েছিল বিসিবি। কিন্তু লঙ্কা সফর বাতিল হলে ঘরোয়া লিগ দিয়ে মাঠে ক্রিকেট ফেরানোর ব্যাপারে বেশ সচেষ্ট দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

স্থগিত হওয়া ডিপিএল পুনরায় শুরু করাটাই অগ্রাধিকার পাবে উল্লেখ করে বিসিবি পরিচালক ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল সদস্য সচিব ইসমাঈল হায়দার মল্লিক বলেন, ‘আমরা শ্রীলঙ্কাকে জবাব দিয়েছি। তাদের উত্তরের অপেক্ষায় আছি। যদি শেষ পর্যন্ত তারা এমন কঠিন অবস্থান ধরে রাখে আমরা খেলবো না। তা হলে আমরা বসেও থাকবো না। আমাদের ভাবনায় আছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শেষ করা। এছাড়াও চাইছি নিজেদের মধ্যে একটি টি-টোয়েন্টি লিগের আয়োজন করতে।’

চারটি দল নিয়ে টি-টোয়েন্টি কর্পোরেট লিগ আয়োজনের ইচ্ছের কথাও জানালালেন মল্লিক, ‘আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে ঢাকা লিগ অন্যতম আসর। যদি শ্রীলঙ্কা না যাওয়া হয় তাহলে সেটি আমরা আগে আয়োজন করার চেষ্টা করবো। আর টি-টোয়েন্টি লিগ যদি করি সেটি হয়তো চারটি দল নিয়ে। বলা যেতে পারে কর্পোরেট লিগের মতো করে একটি আসর হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *