শোককে শক্তিতে পরিণত করে ফল পেলেন তাসকিন

১৬ এপ্রিল ২০১৯। আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করা হয়। ওই দলে ঠাঁই হয়নি স্পিডস্টার তাসকিন আহমেদের। নির্মম বাস্তবতা মানতে তীব্র কষ্ট হয়েছিল তাসকিনের। বুক ফেটেছে অশ্রু ধরে রাখতে পারেননি। তাসকিনের সঙ্গে কেঁদেছিল বাংলাদেশ। দুই বছর আগে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ার পরার শোককে শক্তিতে পরিণত করেছেন তাসকিন। ওই কষ্ট পেয়ে তাসকিনকে পরিণত করেছে বহুগুণ। নিজেকে গুয়িছে আবারও বাংলাদেশ দলে ফিরেছেন।

কঠোর পরিশ্রমে নিজেকে যোগ্য অ্যাথলিট হিসেবে গড়ে তুলেছেন। যে তাসকিন মুছে যাওয়া এক অতীত হওয়ার পথে ছিলেন। সেই তাসকিন এখন বাংলাদেশের তিন ফরম্যাটে অপরিহার্য সদস্য। বাবা-মা দেখেছেন সন্তানের সাধনা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলের তাসকিনের সুযোগ পাওযার পর আনন্দের কথা প্রকাশ করেন তার বাবা-মা। সঙ্গে প্রত্যাশা করেন আসন্ন বিশ্বকাপে শুধু তাসকিনই না, পুরো দল স্মরণীয় সাফল্য আনবে দেশের জন্য।

তাসকিনের বাবা এম এ রশিদ মনু বলেন, আমি মনে করেছিলাম, তাসকিন ভেঙে পড়বে। কিন্তু না, সে লকডাউনের সময় কঠোর পরিশ্রম করেছে। এর হয়ত এটা প্রতিফলন পেয়েছে। আমার কাছে খুবই আনন্দ লাগছে। অভিজ্ঞ পেসারের মা সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, তাসকিনের অনেক মন খারাপ হয়েছিল। সে কান্না করে দিয়েছিল। সবাই তা দেখেছে। তখন থেকেই হয়ত তার মনে কষ্ট জেগেছে। এরপর সে অনেক পরিশ্রম করেছে। এজন্যই আজ এ পুরস্কারটা পেয়েছে।

দুই বছর আগে বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়েছিলেন। এবার আরেক বিশ্বকাপ দল তাসকিন আছেন উজ্জ্বল তারা হয়ে। বাবা-মায়ের গর্ব তাই আকাশ সমান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যের মিশেলে এ স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের মূল দল ঘোষণা করা হয়েছে।

এর পাশাপাশি রিজার্ভ হিসেবে আরও দু’জন খেলোয়াড়কে রাখা হয়েছে বিশ্বকাপ দলে। আগামী ১৭ অক্টোবর শুরু হবে বাংলাদেশ দলের বিশ্বকাপ মিশন। প্রথম রাউন্ডে টাইগারদের প্রথম প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। ‌’বি‌’ গ্রুপের অন্য দুই দল স্বাগতিক ওমান ও পাপুয়া নিউগিনি। প্রথম রাউন্ডে সেরা দুই দলের মধ্যে থাকলে বাংলাদেশ পাবে সুপার-১২’র টিকিট।

বাংলাদেশের সবগুলো ম্যাচ মাঠে গড়াবে ওমানে। বাছাইপর্ব উতরে যেতে পারলে মূল পর্বে বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ডকে। এছাড়া বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা একটি দলের সঙ্গেও খেলতে হবে টাইগারদের।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল: লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান, সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ, নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার ও শামীম পাটোয়ারী। স্ট্যান্ডবাই: রুবেল হোসেন ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব

Sharing is caring!