সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের ‘চাকরি ছেড়েও’ মেলেনি নৌকার টিকিট!

ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে (ইউপি) চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে সরকারি চাকরি থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করে বেশ আলোচনার জন্ম দেয়া সেই প্রধান শিক্ষকের ভাগ্যে জোটেনি নৌকার টিকিট। তবে বিষয়টি নিয়ে তিনি বিচলিত নন। দলের সিদ্ধান্ত মেনে সরে এসেছেন স্বতন্ত্র নির্বাচন করা থেকে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার আশুরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. কামরুল হুদা নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে প্রধান শিক্ষক পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে আবেদন করেন।

মঙ্গলবার গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মূলতবি সভায় এদের নাম ঘোষণা করা হয়। নৌকার মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- ৫নং নাসিরনগর সদরে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আবুল হাসেম,

২নং ভলাকুটে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. রুবেল মিয়া, ১নং চাতলপাড়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল আহাদ, ৬নং বুড়িশ্বরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান এটিএম মোজাম্মেল হক সরকার মুকুল, ৮নং গুনিয়াউকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মো. জিতু মিয়া,

১২নং হরিপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান দেওয়ান আতিকুর রহমান আঁখি, ৭নং ফান্দাউকে সাবেক চেয়ারম্যান ও সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য ফারুকুজ্জামান ফারুক, ৩নং কুন্ডাতে বর্তমান চেয়ারম্যান মো, ওয়াছ আলী, ৯নং চাপড়তলাতে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো. মনসুর আলী ভূঁইয়া।

১১নং পূর্বভাগে মো. আক্তার মিয়া। ৪নং গোয়ালনগরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. কিরন মিয়া। ১০নং গোকর্ণে বর্তমান চেয়ারম্যান ছোয়াব আহমেদ হৃতুল, ১৩নং ধরমন্ডলে উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান বাহার উদ্দিন। প্রধান শিক্ষক মো. কামরুল হুদা যুগান্তরকে বলেন, দলের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছি। সিদ্ধান্ত মেনে আমি স্বতন্ত্র নির্বাচন করব না।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.