সাকিব-ফিজের আইপিএলের ছাড়পত্র নিয়ে আসল চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত

করোনায় স্থগিত হওয়া ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চতুর্দশ আসরের বাকি অংশে দেশের দুই তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমানকে খেলতে অনাপত্তিপত্র (এনওসি) দেওয়া হবে না বলে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

ভারতে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় টুর্নামেন্টের মাঝপথে গত ৪ মে চতুর্দশ আসরটি স্থগিত হয়। তবে টুর্নামেন্টের বাকি অংশ আগামী সেপ্টেম্বরে দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে প্রস্তুতির জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ,

তাই ওই দুই খেলোয়াড়কে এনওসি দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। রবিবার একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলের সাথে আলাপকালে পাপন বলেন, ‘আমি আসলে কোনো সম্ভাবনা দেখছি না।

বিশ্বকাপ কাছাকাছি থাকা অবস্থায় তাদের এনওসি দেওয়া প্রায় অসম্ভব এবং আমরা বিশ্বকাপের জন্য আমাদের প্রস্তুতির জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিরিজ নিয়ে ব্যস্ত থাকব’। কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে সাকিব এবং রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলেছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান।

খারাপ পারফরমেন্সের কারণে প্রথম তিন ম্যাচের পর আর খেলার সুযোগ পাননি সাকিব। তবে বল হাতে ছন্দে থাকায় রাজস্থানের হয়ে সবগুলো ম্যাচই খেলেন মুস্তাফিজ। ৭ ম্যাচে তিনি ৮ উইকেট নিয়েছিলেন। তবে তার বলে বেশ কয়েকটি ক্যাচ ছেড়েছেন ফিল্ডাররা।

নাহলে উইকেটসংখ্যা বাড়ত। আইপিএলের কারণে শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলেননি সাকিব। যা বিসিবির সভাপতিকে হতাশ করেছিল। জুন-জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ে সফরে এক টেস্ট, তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর, ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার সাথে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ।

এরপর নিউজিল্যান্ড (তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ) এবং ইংল্যান্ড (তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ) দল বাংলাদেশ সফর করবে বলে আশা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ দলের ব্যস্ত সূচি থাকার কারণে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) সাকিবকে এনওসি দেওয়ার জন্যও প্রস্তুত নন বলে জানিয়েছিলেন বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান আকরাম খান। সম্প্রতি সাকিবকে দলে নিয়েছে জ্যামাইকা তালাওয়াশ।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.