সাকিব-মিরাজদের কোচ হওয়ার দৌড়ে উপমহাদেশের ৩ জন

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে ১০০ দিনের চুক্তিতে স্পিন বোলিং কোচ হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন ড্যানিয়েল ভেটরি। সর্বশেষ নিউজিল্যান্ড সফরে তিনি বাংলাদেশের স্পিন কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। এবার নতুন করে স্পিন কোচ নিয়োগের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

এরই মধ্যে উপমহাদেশের তিনজন কোচের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে বিসিবি। তবে কারা কারা বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ হতে আগ্রহী সেই বিষয়ে এখনও খোলাসা করেনি বাংলাদেশের ক্রিকেটের এই অবিভাবক সংস্থা।

বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার আকরাম খান জানিয়েছেন, সিনিয়র ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের সঙ্গে আলোচনা করেই এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আগ্রহী তিন কোচই উপমহাদেশের। সোমবার গণমাধ্যমকে আকরাম বলেছেন, ‘স্পিন কোচ এশিয়া থেকে আসবে তিন জন তার মধ্যে শ্রীলঙ্কান একজন আরেক জন ভারতের।

অন্য একজন পাকিস্তানের। আমরা চেষ্টা করছি কথা বলতে এবং হয়তোবা আমরা কয়েকদিনের মধ্যে তারা পৌছাবে সেক্ষেত্রে আমরা দুই তিন দিনের মধ্যে সিনিয়র ক্রিকেটারদের পরামর্শটা নিই ওদের কথা বার্তা আমরা নিই কোচিং স্টাফ আছে, হেড কোচ আছে তাদের সঙ্গে আলোচনা করি আমরাও চিন্তা ভাবনা করি।’

এদিকে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য জন লুইসকে ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব দিয়েছিল বাংলাদেশ। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সিরিজেও টাইগারদের ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তবে তাঁর সঙ্গে চুক্তি বাড়ানোর ব্যাপারেও চিন্তা করবে বিসিবি।

লুইসকে না রাখা হলে তাঁর বিকল্প হিসেবে বিসিবির কাছে বেশ কয়েকজনের নাম আছে। তাদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে বলে জানালেন আকরাম। এর মধ্যে এমন একজনের নাম রয়েছে যিনি বাংলাদেশ দলের সঙ্গে এর আগেও কাজ করেছেন।

এই বিষয়ে আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বিসিবি। তিনি বলেন, ‘এর সাথে আমাদের ব্যাটিং কোচ এখনো জন লুইস আছে ওর ব্যাপারটা অনেকে আগ্রহ দেখাচ্ছে আবার অনেকে আগ্রহ দেখাচ্ছে না। প্রথমে ওর সিদ্ধান্তটা আমরা নেব ওকে আমরা রাখব কি রাখব না।

যদি আমরা না রাখি আমাদের দুই তিন জন শর্ট লিস্টেড আছে। এরমধ্যে এক জন আছেন যিনি আগেও বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করেছেন। এটা মনে হয় আরও তিন চার দিন সময় লাগবে এর মধ্যেই আমরা ফাইনাল করে ফেলবো।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.