সাকিব-মুশফিক-রিয়াদের বিপরীতে না শুধু তামিমের

করোনার মহামারি না থাকলে হয়ত এখন রাজধানী ঢাকা তথা দেশের ক্রিকটাঙ্গনে সাজসাজ রব পড়ে যেত। কারণ রাত পোহালেই প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ শুরু। যার সাথে সম্পৃক্ত দেশের ২০০’র বেশি ক্রিকেটার, অর্ধ্ব-শতাধিক কোচ, কোচিং স্টাফ আর প্রায় সমপরিমাণ সাপোর্টিং স্টাফ।

কিন্তু করোনার কারণে কিছুটা হলেও হইচই কম। তারপরও ঢাকার ক্রিকেট পাড়া মোটামুটি সরব। আগামীকাল ৩১ মে সোমবার সকালেই পর্দা উঠবে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের। সবার জানা টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে প্রতিদিন ৩ মাঠে ৬টি করে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

তার মানে একদিনেই সব দলের একটি করে খেলা অনুষ্ঠিত হয়ে যাবে। অর্থাৎ সোমবার উদ্বোধনী দিনেই মাঠে নেমে পড়বে সব দল। ক্রিকেট অনুরাগি, ভক্ত-সমর্থকরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষায়, প্রিয় দল কখন মাঠে নামবে? প্রিয় পারফরমার কেমন পারফরম করেন তা দেখতে।

সবার আগে দেখার কোন দলের অধিনায়ক কে? পাঠকরা এরই মধ্যে জেনে গেছেন মাশরাফি বির মর্তুজা প্রথম থেকে খেলছেন এবারের লিগে। কিন্তু তিনি নেতৃত্বে থাকছেন না। তার দল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের অধিনায়কত্ব করবেন নুরুল হাসান সোহান।

সোহান নিজেই জানিয়েছেন এ তথ্য। এখন প্রশ্ন হলো ‘পঞ্চ পান্ডবের’ বাকি ৪ সদস্য সাকিব, তামিম, মুশফিক ও রিয়াদ কী অধিনায়কত্ব করবেন? এই চার শীর্ষ তারকা কে কোন দলের অধিনায়ক? জানতে আগ্রহীর সংখ্যা প্রচুর। সেই উৎসাহী ভক্ত ও সমর্থকদের জন্য খবর, সাকিব মোহামেডানের অধিনায়ক।

আবাহনীর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অধিনায়ক হলেন গ্রাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের। স্বাভাবিকভাবেই ধারণা করা হয়েছিল তামিম ইকবালও প্রাইম ব্যাংকের অধিনায়কত্ব করবেন; কিন্তু ভিতরের খবর অন্য। যতটুকু জানা গেছে, তামিম হয়ত আনুষ্ঠানিকভাবে অধিনায়কত্বও নাও করতে পারেন।

প্রাইম ব্যাংক কোচ সারোয়ার ইমরানের কাছে দলের অধিনায়কের নাম জানতে চাওয়া হলে প্রথমে বলেন তামিমের নাম। পরে আস্তে আস্তে জানান, ‘নাহ! তামিম তো আছেই। সেতো দলের সিনিয়র মোস্ট ক্রিকেটার এবং দলের এক নম্বর ক্রিকেটার। টিমের মূল স্তম্ভ।

মাঠে দল পরিচালনা, বোলার ব্যবহার ও ফিল্ডিং পরিচালনা মোটামুটি তামিমই করবে। তবে এমনও হতে পারে টসটা করবে এনামুল হক বিজয়।’ কোচ সারোয়ার ইমরানের এমন মন্তব্যর পর কী মনে হয়? তামিমই সব কিছু করবেন। তবে অধিনায়কের তকমাটা থাকবে এনামুল হক বিজয়ের গায়ে।

টস করতে হয়ত বিজয়কেই দেখা যাবে। এ ব্যাপারে তামিমের ভাবনা কী? তামিম কী চান? সত্যিই জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে প্রাইম ব্যাংকের মত অতি সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী দলের ক্যাপ্টেন্সি করবেন না? তামিমের কাছে এ প্রশ্ন রাখা হলে দেশসেরা ওপেনার সরাসরি হ্যাঁ বা না কিছুই বলেননি।

‘আমিই ক্যাপ্টেন, মাঠে আমার নেতৃত্বেই প্রাইম ব্যাংক খেলবে। আমিই দল পরিচালনা করবো। টস থেকে শুরু করে মাঠে দল পরিচালনার সব আনুষ্ঠানিক সব দায় দায়িত্বও আমি পালন করবো’- এমন কথাও বলেননি তামিম। আবার ‘আমি ক্যাপ্টেন্সি করবো না।

অমুক ক্যাপ্টেন’- এমন কথাও বের হয়নি তামিমের মুখ থেকে। প্রাইম ব্যাংকের অধিনায়ক নিয়ে আজ পড়ন্ত বিকেলে মুঠোফোন আলাপে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারের বর্তমান প্রজন্মের কনিষ্ঠতম সদস্য তামিম ইকবাল খান বোঝানোর চেষ্টা করেন, অধিনায়ক নিয়ে তিনি মিডিয়ায় খোলামেলা কথা বলতে ইচ্ছুক নন।

দল পরিচালনা নিয়ে তার সাথে হেড কোচ সারোয়ার ইমরানের কথা হয়েছে। তিনি কোচকেই তার মনের ইচ্ছে, লক্ষ্য ও পরিকল্পনার কথা জানিয়ে দিয়েছেন। তামিম বলেন, ‘আমি প্রাইম ব্যাংকের ক্যাপ্টেন্সি করবো কি করবো না, তা নিয়ে কোচ ইমরান স্যারের সাথে কথা হয়েছে।

আমি আমার চিন্তা-ভাবনা ও মত তাকে জানিয়ে দিয়েছি। শুধু কোচের সাথেই এ ব্যাপারে আমার খোলামেলা কথা-বার্তা হয়েছে।’ তামিমের এমন বক্তব্যই বলে দেয়, তিনি আসলে হয়ত টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ক্যাপ্টেন্সি করতে ইচ্ছুক নন।

হয়ত আগামীকাল তার বদলে গাজী গ্রুপের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরে সঙ্গে প্রাইম ব্যাংকের হয়ে টস করতে মাঠে নামবেন এনামুল হক বিজয়। তবে দল পরিচালনা করুন আর নাই করুন, মাঠে নিজের সেরাটা দিতে মুখিয়ে আছেন তামিম। এ জন্য সবার দোয়াও চেয়েছেন দেশের এ অন্যতম সেরা উইলোবাজ।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.