সেদিন বাংলাদেশের বিপক্ষে লজ্জায় হেলমেট পরেননি কোহলি

পার্টটাইম বোলার হিসেবে এর আগেও বোলিং করার অভিজ্ঞতা রয়েছে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলির। কিন্তু উইকেটরক্ষক হিসেবেও যে স্বল্পকালীন দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি সেটি অনেকেরই অজানা। ২০১৫ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে এই কান্ড ঘটান কোহলি।ম্যাচের ৪৪তম ওভারে পেসার উমেশ যাদব বোলিংয়ে আসলে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির কাছ থেকে উইকেট কিপিং গ্লাভস চেয়ে নেন সহ অধিনায়ক কোহলি।

এরপর সেই ওভারে উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। সম্প্রতি সতীর্থ মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে এক আড্ডায় ২০১৫ সালের সেই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন ভারত দলপতি। কোহলি বলেন, মাহি ভাইকে (ধোনি) জিজ্ঞেস করে দেখুন কিভাবে সেটি ঘটেছিল। সে বলেছিল দুই কিংবা তিন ওভার উইকেট ধরে রাখার জন্য এবং এভাবেই এটা ঘটে।

আমি শুধু উইকেটের প্রতি নজর দিচ্ছিলাম এবং ফিল্ডিং ঠিক করছিলাম। এরপর আমি বুঝতে পারলাম সে (ধোনি) যখন মাঠে থাকে তখন সে অনেক কিছু খেয়াল রাখে। কারণ তাকে প্রতিটি বলে ফোকাস করতে হয় কিপিং করার সময় এবং ফিল্ডিং সাজাতে হয়। এটা শুধু ছিল নিছক মজা।

সেদিন কোহলি হেলমেট ছাড়াই কিপিংয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। তখন বল করছিলেন ভারতের পেস আক্রমণের সবচেয়ে দ্রুতগতির বোলার উমেশ যাদব। কোন বলটা আবার নাকে লেগে যায়, ভয়ও পাচ্ছিলেন কোহলি। কিন্তু লজ্জায় তখন হেলমেট পরেননি। ভারতীয় দলপতি বলেন, ‘কিপিং করার সময় একটু ভয় লাগছিল। উমেশ যাদব তখন পুরো গতিতে বল করছিল।

ভয় পাচ্ছিলাম, আমার নাকে না লেগে যায়! মনে হয়েছিল, হেলমেট পরে ফেলি। কিন্তু তার পরে ভাবলাম, ব্যাপারটা খুব লজ্জার হয়ে যাবে।’ ওই সিরিজে প্রথম দুই ওয়ানডেতে দাপটের সঙ্গে জিতেছিল বাংলাদেশ। মিরপুরে প্রথম ওয়ানডেতে ৭৯ রান এবং দ্বিতীয়টিতে ৬ উইকেটের সহজ জয় পায় টাইগাররা। তবে তৃতীয় ম্যাচটি ৭৭ রানে জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়ায় মহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *